অবশেষে বাকৃবি উপাচার্যের পদত্যাগ

R-Hoqeঢাকা : অবশেষে পদত্যাগ করলেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল হক। মঙ্গলবার রাতে শিক্ষা সচিব নজরুল ইসলাম খানের কাছে তিনি পদত্যাগপত্র দিয়েছেন।

নারী কেলেঙ্কারি, স্বেচ্ছাচারিতা, দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। আর সে কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ে আওয়ামীপন্থি শিক্ষকদের সংগঠন গণতান্ত্রিক শিক্ষক ফোরামসহ অন্যান্য শিক্ষকরাও তার পদত্যাগ দাবি করে আসছিল।

যদিও অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল হক অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে বলে এসেছেন, তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে। শিক্ষকরা তার পদ থেকে তাকে সরিয়ে দেয়ার ষড়যন্ত্র করছে।

সাইবার ক্রাইম করে মিথ্যা-বনোয়াট অডিও ক্লিপ তৈরি করে তাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও উল্টো অভিযোগ করেন তিনি।

এছাড়াও গত ৩১ মার্চ শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের কাছে অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল হকের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে ধরেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির নেতারা।

অভিযোগগুলোর মধ্যে ছিল- বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অনৈতিক কর্মকাণ্ড, বিতর্কিত ৩০৭ কর্মচারী নিয়োগ। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানহানি, অচলাবস্থা সৃষ্টি, পরিবেশ নষ্ট করা হচ্ছে বলেও শিক্ষামন্ত্রীর কাছে নালিশ করেন শিক্ষকরা।

শিক্ষকদের অভিযোগ শুনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ অভিযোগগুলো খতিয়ে দেখার জন্য গঠিত তদন্ত কমিটিকে সরেজমিনে তদন্ত কাজ শুরু করারও নির্দেশ দেন। তদন্ত প্রতিবেদন প্রাপ্তির সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে প্রতিনিধি দলকে আশ্বস্ত করেছিলেন মন্ত্রী।

উল্লেখ্য, নারী কেলেঙ্কারির অভিযোগে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে গত ১৮ মার্চ থেকে আন্দোলন শুরু করে আওয়ামীপন্থি গণতান্ত্রিক শিক্ষক ফোরামের শিক্ষকরা। সেই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় সকল প্রশাসনিক পদ থেকে শিক্ষক-কর্মকর্তারা পদত্যাগ করায় প্রশাসনিক কার্যক্রমও ভঙ্গুর হয়ে পড়ে। বিভিন্ন হলের প্রভোস্ট এবং হাউসটিউটররাও পদত্যাগ করেন। ক্যাম্পাসের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা প্রক্টরও গত ২৯ মার্চ পদত্যাগ করেন।

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]