বিশ্বরেকর্ড গড়লেন তামিম-ইমরুল

tamimস্পোর্টস ডেস্ক : ১৯৬০ সাল। দক্ষিণ আফ্রিকা ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার পাঁচ ম্যাচ সিরিজের শেষ টেস্ট। ওভালে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ১৫৫ রানেই প্রথম ইনিংস গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ডের। জবাবে দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ দাঁড়ায় পাহাড় সমান, ৪১৯ রান। অর্থাৎ ২৬৪ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে ইংল্যান্ড। তখনও টেস্টের দুই দিন বাকি। ম্যাচ বাঁচানোর কঠিন চ্যালেঞ্জ ইংলিশদের সামনে। কিন্তু বাকি দুই দিনের গল্পটা কি জানেন?

যে ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংসে ১৫৫ রানে অলআউট, সেই তারাই দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে! কতো রানে জানেন? ৯ উইকেটে ৪৭৯ রান! অবিশ্বাস্য তাই না? আর সেই অবিশ্বাস্য কাজটাই করে দেখিয়েছিলেন দুই ইংলিশ ব্যাটসম্যান কলিন কাউড্রে ও জিওফ পুলার। দুজনের উদ্বোধনী জুটিতে এসেছিল ২৯০ রান!

এতদিন ওটাই ছিল টেস্টে কোনো দলের ইনিংসে উদ্বোধনী জুটিতে সর্বোচ্চ সংগ্রহ। তবে এখন থেকে রেকর্ডটির পাশে আর কাউড্রে-পুলারের নাম লেখা থাকবে না! কারণ ৫৫ বছরের অক্ষত রেকর্ডটি এবার ভেঙে দিলেন বাংলাদেশের তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস। পাকিস্তানের বিপক্ষে খুলনা টেস্টে দ্বিতীয় ইনিংসে উদ্বোধনী জুটিতে কাউড্রে-পুলারের ২৯০ রান ছাড়িয়ে নতুন ইতিহাস গড়েছেন দুই টাইগার ওপেনার।

মজার বিষয়, ইংল্যান্ডের মতো বাংলাদেশও রানের পাহাড় মাথায় নিয়েই তাদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেছিল। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ইংল্যান্ড যেখানে ২৬৪ রানে পিছিয়ে ছিল, সেখানে পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশ পিছিয়ে ছিল ২৯৬ রানে! বাংলাদেশের জন্যও ম্যাচ বাঁচানো তখন বিশাল এক চ্যালেঞ্জ। তবে তামিম-ইমরুলের ব্যাটে সে চ্যালেঞ্জটা ভালোমতোই মোকাবিলা করছে বাংলাদেশ। চতুর্থ দিনের প্রথম সেশনে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের সংগ্রহ বিনা উইকেটে ২৯১ রান। তামিম ১৪৩ ইমরুল ১৪৩ রানে অপরাজিত আছেন। ৫৫ বছর আগে কাউড্রে ১৫৫ ও পুলার ১৭৫ রান করে ইংল্যান্ডের ম্যাচ বাঁচিয়েছিলেন ড্র করে। এবার তামিম ও ইমরুলের পালা।

টেস্টে দলের দ্বিতীয় ইনিংসে উদ্বোধনী জুটিতে তৃতীয় সর্বোচ্চ (তামিম-ইমরুলের রেকর্ডের যা দ্বিতীয় ছিল) সংগ্রহের রেকর্ড অ্যান্ড্রু স্ট্রস ও মার্ক ট্রেসকথিকের। ২০০৪ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ডারবান টেস্টে দ্বিতীয় ইনিংসে উদ্বোধনী জুটিতে ইংল্যান্ডকে ২৭৩ রান উপহার দিয়েছিলেন দুজন।

টেস্টে দলের দ্বিতীয় ইনিংসে পাঁচ সর্বোচ্চ সংগ্রহ:

জুটি                                                                রান        প্রতিপক্ষ           ভেন্যু         সাল
তামিম ইকবাল-ইমরুল কায়েস (বাংলাদেশ)       ২৯১*     পাকিস্তান          খুলনা           ২০১৫
কলিন কাউড্রে-জিওফ পুলার (ইংল্যান্ড)             ২৯০     দক্ষিণ আফ্রিকা    ওভাল        ১৯৬০
অ্যান্ড্রু স্ট্রস-মার্ক ট্রেসকথিক (ইংল্যান্ড)               ২৭৩      দক্ষিণ আফ্রিকা    ডারবান    ২০০৪
গরডন গ্রিনিজ-ডেসমন্ড হায়নেস (উইন্ডিজ)         ২৫০*    অস্ট্রেলিয়া         জর্জটাউন    ১৯৮৪
ম্যাথু হেইডেন-জাস্টিন ল্যাঙ্গার  (অস্ট্রেলিয়া)        ২৪২        উইন্ডিজ           অ্যান্টিগা    ২০০৩

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]