সালমান খানের ৫ বছরের কারাদণ্ড

salman-khan 1ওয়ান নিউজ বিডি, ঢাকা : গাড়ি চাপা দিয়ে মানুষ হত্যা মামলায় বলিউড তারকা সালমান খানকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন মুম্বাইয়ের একটি আদালত।

বুধবার দুপুরে বিচারক ডি ডব্লিউ দেশপাণ্ডে ওই রায় ঘোষণা করেন।

সালমানকে দোষী সাব্যস্ত করে দেওয়া রায়ে বলা হয়, “অভিনেতার বিরূদ্ধে আনা সকল অভিযোগ সত্য প্রমাণিত হয়েছে।”

এরপর কাঠগড়ায় উপস্থিত সালমানকে উদ্দেশ্য করে বিচারপতি বলেন, “আপনি গাড়ি চালাচ্ছিলেন কোন লাইসেন্স ছাড়াই এবং আপনি মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন।” এই রায়ের ফলে সালমানের ওপর লগ্নি করা ২০০ কোটি রুপির ব্যবসার ভবিষ্যত অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

সালমানের বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগই প্রমাণিত হয়েছে।

অনিচ্ছাকৃত খুনের জন্য ৩০৪ ধারায় দোষী সব্যস্ত হলেন সালমান।

মামলা চলাকালীন সালমানের ড্রাইভার অশোক সিং জানিয়েছিলেন সালমান নন, সেদিন রাতে গাড়ি চালাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু সাক্ষ্যপ্রমাণ দেখে সালমানকেই দোষী সব্যস্ত করেছে আদালত। আদালতে উপস্থিত থাকা সালমানের এক অনুরাগী জানান, সকাল থেকে হালকা মেজাজে থাকলেও রায় ঘোষণার পরই ভেঙে পড়েন সালমান।

রায় শুনে কেঁদে ফেলেন সালমান খান। রায় ঘোষণার পর অসুস্থ হয়ে পড়েন সালমানের মা।

যদিও সালমানের আইনজীবী অনুরোধ করেছিলেন, সল্লুর সাজা যাতে ৩ বছরের জেলের বেশি না হয়, জরিমানার টাকা বাড়ানো হোক।

২০০২ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর ভোররাত। সালমানের টয়োটা ল্যান্ডক্রুজার গাড়ির চাপায় ঝরে যায় একটি তাজা প্রাণ। আহত হন ফুটপাতে ঘুমিয়ে থাকা আরও চারজন। সালমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ, মদ্যপ অবস্থায় বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালাতে গিয়েই এ দুর্ঘটনা।

কিন্তু তাঁর দাবি, দুর্ঘটনার সময় তিনি গাড়ি চালাচ্ছিলেন না। এক যুগের বেশি সময় পর অবশেষে আজ জানা গেলো, সত্যিই সালমান মানুষ হত্যা করেছেন।

এদিকে ভীষণ দুশ্চিন্তার মধ্যে আছেন বলিউডের লগ্নিকারীরা। কারণ, সালমানের ওপর রয়েছে প্রায় ২০০ কোটি রুপির বিনিয়োগ। সালমান অভিনীত বজরঙ্গি ভাইজান ও প্রেম রতন ধন পাও ছবির শুটিং প্রায় শেষ পর্যায়ে। এ ছাড়া দাবাং ৩, নো এন্ট্রি মে এন্ট্রিসহ আরও চারটি ছবির কাজ আছে তাঁর হাতে।

কারাদণ্ড হওয়ায় তাঁর হাতে থাকা ছবিগুলোর কাজ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। আর ক্ষতির মুখে পড়েছে বলিউড।

news portal website developers eCommerce Website Design