জাপা এমপির বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলা

Mymensingh-Pic-BM1ময়মনসিংহ : মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে ময়মনসিংহ-৭ (ত্রিশাল) আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রেসিডিয়াম সদস্য এম এ হান্নানসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে মামলাটি দায়ের করা হয় ময়মনসিংহের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে।

ত্রিশালের বৈলর মুন্সিপাড়া গ্রামের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুর রহমানের স্ত্রী রহিমা খাতুন বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন।

সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ১নং আমলী আদালতের বিচারক আহসান হাবিব আন্তর্জাতিক অপরাধ দমন আইন ১৯৭৩ সালের ৩(২) ধারায় বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে মামলাটি আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার অপর আসামিরা হলেন- ময়মনসিংহ শহরের ৩নং কলেজ রোড গোলকীবাড়ি এলাকার জামায়াত নেতা মো. ফখরুজ্জামান ও গলগণ্ডা এলাকার গোলাম রব্বানী।

মামলার বিবরণে অভিযোগ করা হয়েছে, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন এম এ হান্নান ময়মনসিংহ জেলা শান্তি কমিটির সাধারণ সম্পাদক এবং মো. ফখরুজ্জামান ও গোলাম রব্বানী আলবদর বাহিনীর সশস্ত্র সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সে সময় ৯ আগস্ট বিকেলে ত্রিশালের বৈলর ইউনিয়নের মুন্সিপাড়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুর রহমানকে গৌরীপুরের ভাঙ্গনামারি চর থেকে ধরে আনা হয়। এরপর বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে টর্চার সেলে প্রকাশ্য দিবালোকে দুই চোখ উপড়ে ফেলে ডান হাত ভেঙে দেয়া হয় এবং এম এ হান্নান নিজে গুলি করে হত্যা করে তার লাশ নদে ফেলে দেন। পরে আসামিরা তাদের বাড়িঘর লুটপাট, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে।

মামলায় বাদী রহিমা খাতুন আরো অভিযোগ করেন, মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে এম এ হান্নানের শহরের নতুন বাজার বাসা ও থানার ঘাট জেলা পরিষদ ডাকবাংলোতে টর্চার সেল তৈরি করে অসংখ্য নিরীহ নারী-পুরুষকে নির্যাতন করে হত্যা করে লাশ ব্রহ্মপুত্র নদে ভাসিয়ে দেন।

এদিকে দীর্ঘদিন পর মামলা করার বিষয়ে বাদী রহিমা খাতুন সাংবাদিকদের জানান, এতোদিন প্রাণভয়ে স্বামীর বিচার চাননি। কিন্তু এখন গণতান্ত্রিক সরকার ক্ষমতায় থাকায় ন্যায় বিচার প্রত্যাশা করে মামলা দায়ের করেছেন।

news portal website developers eCommerce Website Design