নিজ দলের কাউন্সিলর না থাকায় বিপাকে জামায়াতের মেয়র

jamat logoওয়ান নিউজ বিডি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ : চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে স্বতন্ত্র (জামায়াত) মনোনীত প্রার্থী বিজয়ী হলেও ১৫টি ওয়ার্ডের কেউ জামায়াতের কাউন্সিলর নির্বাচিত না হওয়ায় বিপাকে পড়তে পারেন নজরুল ইসলাম।

অনেকের মতে, বিএনপি মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থীরা স্থানীয়ভাবে জামায়াতের মেয়র প্রার্থীর সঙ্গে ভোট আঁতাতের কারণে বিএনপির অধিকাংশ কাউন্সিলর প্রার্থী বিজয়ী হয়। পাশাপাশি জামায়াতের মেয়র প্রার্থীও বিজয়ী হয়। পক্ষান্তরে এ আঁতাতের কারণে জামায়াতের সব কটি ওয়ার্ডে তাদের কাউন্সিলরদের ভরাডুবি হয়।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, আশির দশক থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জে জামায়াতের উত্থানের পাশাপাশি প্রতিটি পৌরসভা নির্বাচনে ১৫ ওয়ার্ডের অধিকাংশই জামায়াতের কাউন্সিলররা নির্বাচিত হয়েছিলেন। কিন্তু এবার পৌরসভা নির্বাচনে ১৫ ওয়ার্ডের মধ্যে ১৪টিতে জামায়াত একক কাউন্সিলর প্রার্থী দেয়।

প্রার্থীরা হলেন- ১ নং ওয়ার্ডে নুরুল ইসলাম, ৩ নং ওয়ার্ডে রবিউল ইসলাম, ৪ নং ওয়ার্ডে আবুল হাসান, ৫ নং ওয়ার্ডে আব্দুল গনি, ৬ নং ওয়ার্ডে মাওলানা আব্দুল করিম, ৭নং ওয়ার্ডে মাওলানা আব্দুল মোমিন, ৮ নং ওয়ার্ডে আব্দুস সালেক, ৯ নং ওয়ার্ডে আব্দুস সালাম সেলিম, ১০ নং ওয়ার্ডে বাদরুল আলম, ১১ নং ওয়ার্ডে আব্দুল হাই, ১২ নং ওয়ার্ডে গোলাম কবির, ১৩ নং ওয়ার্ডে আব্দুল খালেক, ১৪ নং ওয়ার্ডে জারজিস ও ১৫ নং ওয়ার্ডে রেজাউল করিম।

এদিকে, ১৪টি ওয়ার্ডেই জামায়াত কাউন্সিলর প্রার্থীর পরাজয়ে খোদ দলে প্রভাব পড়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক জামায়াত কর্মী জানান, একক প্রার্থী হওয়ার পরও তাদের পরাজয়ের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে, তিনি বিএনপির কাউন্সিলর প্রার্থীদের সঙ্গে জামায়াতের মেয়র প্রার্থীর আঁতাতের বিষয়টি উড়িয়ে দেন।

অন্যদিকে, কাউন্সিলর পদে কেউ নির্বাচিত না হওয়ায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার নতুন পরিষদ পরিচালনা করতে জামায়াতের নবনির্বাচিত মেয়র মো. নজরুল ইসলামকে অনেকটা বেকায়দায় পড়তে হবে বলে দলে গুঞ্জন চলছে।

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]