নির্বাচনে হেরে সড়কেই পাকা কবর করলেন সেই প্রার্থী!

madan pictureওয়ান নিউজ ডেস্ক : নেত্রকোনার মদন উপজেলার তিয়শ্রী গ্রামে সরকারি সড়কের ওপর পারিবারিক পাকা কবর নির্মাণ করে দুই গ্রামবাসীর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছেন বিএনপির এমপি প্রার্থী লে. কর্নেল (অব.) সৈয়দ আতাউল হক।

এতে যাতায়াত, মালামাল পরিবহন ও রোগীদের নিয়ে বিপাকে পড়েছেন এসব এলাকার লোকজন। এ ব্যাপারে ভূক্তভোগীরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

২০০৮ সালের সংসদ নির্বাচনে নেত্রকোনা- ৪ আসনে বিএনপির এমপি প্রার্থী ছিলেন লে. কর্নেল (অব.) সৈয়দ আতাউল হক।

বৃহস্পতিবার তিয়শ্রী গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, সামনে এলজিইডি সড়কে কবর নিমার্ণের বাউন্ডারি করে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। লোকজন উপজেলা সদরসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে বাড়িতে ফিরতে এই জায়গায় এসে থেমে যায়। বাকি রাস্তা পায়ে হেটে যেতে হয়। এতে ওই সড়কে যাতায়াতকারীরা বিড়ম্বনায় পড়ছেন।

ভোক্তভোগী মো. আবদুল লতিফ, মো. রোকনুজ্জামন, মো. নজরুল ইসলামসহ কয়েকজন জানান, আমরা দীর্ঘদিন ধরে তিয়শ্রী ও ভবানীপুর গ্রামের লোকজন এ সড়ক দিয়ে যাতায়াত করে আসছি।  সম্প্রতি আতাউল হক  এই সড়কের উপর পাকা কবর নির্মাণ করে যাতায়াত বিচ্ছিন্ন করে দেন।

এলাকাবাসী জানায়, আতাউল হক গত সংসদ নির্বাচনে নিজ কেন্দ্রে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর চেয়ে কম ভোট পাওয়ায় এলাকাবাসীর প্রতি ক্ষুব্ধ ছিলেন। এর জের ধরে তিনি কবর নির্মাণ করে রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ফকর উদ্দিন আহম্মদ বলেন, নির্বাহী কর্মকর্তা বিষয়টি আমাকে দেখতে বলেছেন। সেখানে কোনো কবর আছে বলে আলামত পাওয়া যায়নি। রাস্তাটি বন্ধ করা ঠিক হয়নি।

সৈয়দ আতাউল হক বলেন, আগে পায়ে হেটে এদিক দিয়ে এলাকার লোকজন যাতায়াত করত। এখানে আমার মা খালাসহ ৪টি কবর রয়েছে। তাই পাকা বাউন্ডারি দিয়েছি। তবে পুকুরের পূর্বপাড় দিয়ে লোকজনকে যাতায়াতের জন্য সাবেক চেয়ারম্যানকে বার বার বলেছি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. খুরশীদ শাহরিয়ার জানান, এ ধরনের একটি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি নিষ্পত্তি করার জন্য সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান ও এলজিইডি প্রকৌশলীকে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলেছি।

news portal website developers eCommerce Website Design