ওসি আবুল কালাম আজাদ বর্তমান সময়ের সাহসী এক যোদ্ধা

আল-আমিন মিয়া, নরসিংদী : ওসি আবুল কালাম আজাদ একজন দেশ প্রেমিক হিসেবে রাজাকার-আলবদরের হাত থেকে দেশ ও জাতিকে রক্ষার দৃঢ প্রত্যায় নিয়ে বিগত ২০০১ সালে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে সাব-ইন্সেপেক্টর হিসেবে যোগদান করেন। পরে তিনি অফিসার্স ইনচার্জ হিসেবে পদোন্ততি পেয়ে টঙ্গী-ভালুকা থানায় অত্যান্ত সততা ও নিষ্টার সাথে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে নরসিংদী জেলার পলাশ থানায় অফিসার ইনচার্জ এর দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। একজন মেধাবী, নিরপেক্ষ, পরিশ্রমী ও সাহসী পুলিশ অফিসার দেশ ও জাতির গর্ব।

সকল অপরাধীদের সনাক্তকরন প্রকৃত শক্তির উৎসসহ নিরপেক্ষ ভুমিকায় আদালতে প্রেরণ করা যাদের হাতে ন্যস্ত থাকে তারা হলো পুলিশ বাহিনী। মহামান্য আদালত বা বিচারক কখনো কোন আসামীকে দোষী সার্বস্থ করে জেল জরিমানা অথবা ফাঁসীর দন্ড দেয়না, দন্ড হয় পুলিশ অফিসার কতৃক তদন্ত করে মহামান্য আদালত চার্জশীট দাখিলের মাধ্যমে আদালতের বিচারক তা বিচার বিষশ্লেন করে তারপর আসামীকে দোষী সার্বস্থ করে জেল জরিমান অথবা ফাঁসীর দন্ড দেয়। মুলত পুলিশের তদন্ত প্রতিবেদনের উপর নির্ভর করে অপরাধীদের ভাগ্য।

বিশ্বের প্রতিটি রাষ্ট্রে যদি পুলিশ বাহিনী না থাকতো তবে সে দেশে কখনো আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হতো না। এই কারণে যে দেশের পুলিশ বাহিনীর কার্যক্রম যত উন্নত সে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থাও তেমন উন্নত। এছাড়া যে দেশের পুলিশ বাহিনী যত কর্মঠ সে দেশের জনগণ তত শৃঙ্খলাবদ্ধ এবং দেশ প্রেমিক। একজন সংবাদকর্মী হিসাবে আমার মনে হয়, দেশের নিয়ম বা অনিয়ম ঘটনাবলী সম্পর্কে সত্যকে উৎঘাটন করে, সৎ ও সাহসিকতার সাথে নিরপেক্ষ ভাবে আইন এবং সমাজের কাছে তুলে ধরে যাচ্ছেন পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ।

ছোট্র জীবনে পুলিশ বাহিনী নিয়ে অনেক কিছু শুনেছি, তবে পুলিশ বাহিনীর মধ্যে অনেক সৎ নিষ্ঠাবান কর্মকর্তা রয়েছে যারা জীবন বাঁজি রেখে সততার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছে। আজ এমনই এক সাফল্যের বরপুত্র কে নিয়ে আজকের উৎসাহ মুলক প্রতিবেদন লেখা। আর তিনিই হচ্ছেন আমাদের পলাশ থানার ওসি আমাদের গর্ব।

news portal website developers eCommerce Website Design