top 2

বন্ধ ৬০ রেলষ্টেশন চালু করলেন রেলমন্ত্রী

By shaon

March 16, 2017

ওয়ান নিউজ নরসিংদী : দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ থাকা ১৪০ টি রেলস্টেশন খোলার অংশ হিসেবে প্রথম ধাপে ৬০ টি বন্ধ স্টেশনের কার্যক্রম উদ্বোধন করেছেন রেলমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক। বৃহস্পতিবার সকালে নরসিংদীর ঘোড়াশাল রেলস্টেশন থেকে এই উদ্বোধন কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়।

নরসিংদী-২ (পলাশ) আসনের এমপি কামরুল আশরাফ খান পোটনের সভাপতিত্বে রেলমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে স্টেশনগুলোর উদ্বোধন করেন। ১৬মার্চ বৃহস্পতিবার নরসিংদীর ঘোড়াশাল স্টেশন থেকে একযোগে স্টেশনগুলো চালু করেন রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে রেলমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে এখন জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠিত। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মহতি উদ্যোগের ফলে পূর্বাঞ্চলের এই ৬০ স্টেশন চালু করা হলো। বাকি গুলোও পর্যায়ক্রমে চালু করা হবে। বাংলাদেশে সড়ক পথ যেভাবে উন্নয়ন হচ্ছে তার সাথে তাল মিলিয়ে রেলপথও উন্নয়ন হচ্ছে। এখন ডাবল লাইনের ফলে ট্রেন দ্রুত আসা যাওয়ার ফলে অনেকেই গ্রাম থেকে গিয়ে অফিস করে আবার যথা সময়ে ফিরেও আসতে পারেন।

সারাদেশের ৪৬০ রেলস্টেশনের মধ্যে ১৮৮ স্টেশন দীর্ঘদিন থেকে বন্ধ ছিলো। রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের প্রায় ৬০ স্টেশন সম্পূর্ণরূপে বন্ধ ছিলো প্রায় ৫ থেকে ৭ বছর যাবৎ। এছাড়া আংশিক ও শিফটিং করে বন্ধ রয়েছে ১০ থেকে ২০টি স্টেশন।

বৃহস্পতিবার থেকে ঢাকা বিভাগে ২১ টি, চট্টগ্রাম বিভাগে ১২ টি, পাকশী ২৩ টি ও লালমনিরহাটের ৪ টি স্টেশন একযোগে চালু হলো। রেলওয়ের ক্যাটাগরি অনুযায়ী সবগুলো স্টেশনই ‘বি’ শ্রেণির। এসব বন্ধ স্টেশন চালু হওয়ায় পূর্ব ও পশ্চিমের সব রেলের ‘রানিং টাইম’ কমে আসবে। ট্রেনগুলো দ্রুত ক্রসিং নেওয়ার সুবিধা পাবে।

ঢাকা বিভাগে যে ২১ স্টেশন চালু হচ্ছে সেগুলো হলো টঙ্গী-ভৈরব সেকশনের ঘোড়াশাল, আমীরগঞ্জ, শ্রীনিধি। টঙ্গী-ময়মনসিংহ সেকশনের ভাওয়াল গাজীপুর, সাতখামাইর, ধলা, উমেদনগর। ময়মনসিংহ, জামালপুর সেকশনের পিয়ারপুর। জামালপুর-ময়মনসিংহ সেকশনের কেন্দুয়া বাজার, ভুয়াপুর। ময়মনসিংহ ভৈরব বাজার সেকশনের মধ্যে বিস্কা, সোহাগী, নান্দাইল রোড, কালিকাপ্রসাদ। শ্যামগঞ্জ মোহনগঞ্জ সেকশনের ঠাকুরকোনা, বারহাট্টা। আখাউড়া শায়েস্তাগঞ্জ সেকশনের মধ্যে শাহাজীবাজার, মুকুন্দপুর। শায়েসাতাগঞ্জ-সিলেট সেকশনের মধ্যে সাতগাঁও, লংলা ও বরমচাল স্টেশন।

আর চট্রগ্রামের বিভাগের যে ১২ স্টেশন চালু হচ্ছে সেগুলো হলো, চট্রগ্রাম-লাকসাম সেকশনের মুহুরীগঞ্জ, ফাজিলপুর, শর্শদী, নাওটী। লাকসাম-আখাউড়া সেকশনের মধ্যে ময়নামতি। লাকসাম নোয়াখালী সেকশনের মধ্যে দৌলতগঞ্জ, খিলা, নাথেরপেটুয়া ও বজরা। লাকসাম-চাঁদপুর সেকশনের মধ্যে শাহাতলী। চট্টগ্রাম-নাজিরহাট সেকশনের মধ্যে সরকারহাট ও ঝউতলা।

পাকশী রেলওয়ে বিভাগের যে ২৩ স্টেশন চালু হচ্ছে সেগুলো হলো, খুলনা-দর্শনা সেকশনের ফুলতলা, রূপদিয়া, মেহেরুননগর, সফদারপুর ও আনসারবাড়ীয়া। দর্শনা-ইশ্বরদী সেকশনের মধ্যে মিরপুর ও পাকশী। ইশ্বরদী-সান্তাহার সেকশনের মধ্যে আজিমনগর, মাধনগর ও রানীনগর। সান্তাহার-পার্বতীপুর সেকশনের মধ্যে হিলি ও ভবানীপুর। পাবতীপুর-চিলাহাটি সেকশনের মধ্যে ডোমার রেলস্টেশন। আব্দুলপুর-চাপাই সেকশনে কাঁকনহাট। আমনুরা-রহনপুর সেকশনে নাচোল। যশোর বেনাপাল সেকশনের মধ্যে বেনাপোল। পোড়াদহ-গোয়ালন্দঘাট সেকশনের মধ্যে কুমারখালী, খোকসা, পাংশা ও পাঁচুরিয়া জংশন। পাচুরিয়া-ফরিদপুর সেকশনে মধ্যে আমিরাবাদ ও ফরিদপুর। কালুখালি-ভাটিয়াপাড়া সেকশনের মধ্যে মধুখালী জংশন।

রেলওয়ে লালমনিরহাট বিভাগের যে ৪ স্টেশন চালু হচ্ছে সেগুলো হলো, সান্তাহার-বোনারপাড়া সেকশনের মধ্যে আলতাফনগর, ভেলুরপাড়া ও মহিমাগঞ্জ। লালমনিরহাট-বুড়িমারি সেকশনের মধ্যে আদিতমারি অন্নদানগর।

ঢাকা বিভাগের ঘোড়াশাল স্টেশন চালুর মাধ্যমে সকাল ১১টায় ৬০ বন্ধ স্টেশন চালু কার্যক্রম উদ্বোধন করেন রেলমন্ত্রী। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে বাকি ৫৯ স্টেশনেরও উদ্বোধন করেন তিনি।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, নরসিংদী-৩ (শিবপুর) আসনের এমপি সিরাজুল ইসলাম মোল্লা, রেল সচিব মো. ফিরুজ সালাহ উদ্দীন, পলাশের সাবেক এমপি আনোয়ারুল আশরাফ খান দিলীপ, নরসিংদীর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ড. মোজাম্মেল হক, পলাশ উপজেলা পরিষদেও চেয়ারম্যান সৈয়দ জাবেদ হোসেন, পলাশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহমুদা আক্তারসহ রেলের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাগণ।