মাদক ব্যবসায়ীদের কোন ছাড় নয়- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

asadur jaman khan kamalওয়ান নিউজ, ময়মনসিংহ : মাদক ব্যবসায়ীর অবস্থান যত দৃঢ়ই হোক না কেন তাদের কোন ছাড় দেওয়া হবে না বলে কঠোর হুশিয়ার করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন।

তিনি বলেন, “প্রধানমন্ত্রী মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সর কথা বলেছেন। মাদক ব্যবসায়ী যত বড় শক্তিশালী, উচ্চ বিত্তশালী, জনপ্রতিনিধি কিংবা অসাধরণ কোন ব্যক্তিত্ব হোক না কেন আমরা এ ব্যাপারে কাউকেই ছাড় দেব না, আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব। এটা প্রধানমন্ত্রীর ওয়াদা। এ ওয়াদা অনুযায়ী আমরা কাজ করে যাচ্ছি।”

রোববার দুপুরে ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়, ময়মনসিংহ রেঞ্জ পুলিশ ও মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের যৌথ উদ্যোগে এবং ময়মনসিংহ পৌরসভার পৃষ্ঠপোষকতায় ‘মাদকবিরোধী বিভাগীয় সমাবেশ’-এ প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেছেন।

মাদক বাংলাদেশে উৎপাদিত হয় না, পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে আসে জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “বন্ধুপ্রতীম দেশ ভারতের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে ফেনসিডিল নামক মরন নেশা বাংলাদেশে আসা আমরা কমিয়ে ফেলেছি। তারা ওয়াদা করেছেন বর্ডার অঞ্চলে ফেনসিডিল আসা বন্ধ করে দেবে এবং অন্যান্য যে মাদকগুলো তাদের দেশ থেকে আসে সেগুলোও তারা নিয়ন্ত্রণ করবে।”

মাদকের আগ্রাসন থেকে যুবসমাজকে মুক্ত করার সর্বাত্মক চেষ্টা চলছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, “আমাদের দেশের যুবসমাজ অত্যন্ত মেধাবী। এরা পারে না এমন কোন কাজ নেই। হিমালয়ের চূড়ায় মেয়েরা পাড়ি দিয়েছে, ক্রিকেটে ছেলেরা দেশকে উচ্চ স্থানে নিয়ে গেছে। সর্বক্ষেত্রে তারা দেশকে অনেক উঁচুতে নিয়ে গেছে। কাজেই মাদক থেকে মেধাবী যুবসমাজকে বিরত রাখতে হবে। আমরা তাদের পথ হারাতে দেবো না।”

মাদকের সমস্যা নিয়ে সারা দেশকে এক হয়ে কাজ করার আহবান জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মাদক প্রতিরোধে গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে ঘুরে বেড়াচ্ছি। জেলা, উপজেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে সমাবেশ করছি। মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সের কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। মাদক প্রতিরোধে আমরা সব ধরণের প্রচেষ্টা নিয়েছি।

ইয়াবার জন্য সর্বোচ্চ শাস্তির ব্যবস্থা করা হচ্ছে জানিয়ে আসাদুজ্জামান খান বলেন, “মাদকের ভয়ঙ্কর থাবা থেকে তরুণ ও যুবকদের রক্ষা করতে জনগণকে উদ্ধুদ্ধ ও সচেতন করতেও আমরা কাজ করছি।”

মাদকের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে পরিবারের কর্তাদের ভূমিকার কথা জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, “ছেলে-মেয়েকে বুঝাতে হবে। তাদেরকে সময় দিতে হবে, কথা শুনতে হবে। সন্তানের প্রতি বাড়তি নজর দিতে হবে।”

মাদক প্রতিরোধে মসজিদের ইমামদের নামাজের আগে অন্তত এক মিনিট মাদকের বিরুদ্ধে কথা বলার আহবান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, “আপনারাও ভূমিকা নিন, বুঝাতে চেষ্টা করুন, মাদক ধর্মে নিষেধ। দেখবেন যুবসমাজ মাদক বর্জন করবেই।”

ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার জি.এম.সালেহ উদ্দিনের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান, বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ এমপি, নাজিম উদ্দিন আহমেদ এমপি, সালাহউদ্দিন মুক্তি এমপি, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী, মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো: জামাল উদ্দিন আহমেদ, পুলিশের ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি।

গেস্ট অব অনার হিসেবে বক্তব্য রাখেন দেশের বিশিষ্ট শিল্পপতি আমিনুল হক শামীম। আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) খলিলুর রহমান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান, জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) সৈয়দ ইসলাম, ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র মো: ইকরামুল হক টিটু, মহানগর আওয়ামীলীগ সভাপতি এহতেশামুল আলম, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল।

সমাবেশ শেষে মন্ত্রী নগরীর টাউন হলে ময়মনসিংহ-বেনাপোল রোডে শামীম এন্টারপ্রাইজের এসি বাস সার্ভিসের উদ্বোধন করবেন। পরে পুলিশ ব্যারাক-২ এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]