বাকৃবিতে দোকানপাট বন্ধে শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ, নির্বিকার প্রশাসন

bau

bauজাহিদ হাসান, বাকবি: বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) জব্বার মোড়ে দুই দোকানে আগুন লাগার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরের খাবার হোটেলসহ সবধরনের দোকানপাট বন্ধ রেখেছে বিশ্ববিদ্যালয় ব্যবসায়িক মালিক সমিতি। দুইদিন যাবৎ সবধরনের দোকান বন্ধ থাকায় চরম বিপাকে পড়েছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এদিকে বিষয়টি সমাধানে এখন পর্যন্ত কোনো পদক্ষেপ নেয়নি প্রশাসন।

পূজার ছুটিতে অনেক শিক্ষার্থী বাড়িতে চলে গেলেও বেশিরভাগ শিক্ষার্থীই রয়ে গেছেন ক্যাম্পাসে। কিন্তু ছুটিকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল আবাসিক হলে খাবার ডাইনিং বন্ধ রাখা হয়েছে। এদিকে দোকান মালিকদের অবরোধে সকল খাবার হোটেল বন্ধ থাকায় ভোগান্তিতে পড়েছে শিক্ষার্থীরা। খাবার খেতে যেতে হচ্ছে ক্যাম্পাসের বাইরে। বিশেষ করে আবাসিক হলের মেয়েদের পোহাতে হচ্ছে চরম ভোগান্তি।

বিষয়টি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় বাজার কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. জয়নাল আবেদীন বলেন, পূজার ছুটির জন্য রবিবার পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকবে। বিশ্ববিদ্যালয় না খোলা পর্যন্ত দোকান মালিকদের সাথে আলোচনায় বসার সম্ভাবনা কম।

বুুধবার মধ্যরাতে হঠাৎ বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে দুই দোকানে আগুন লাগায় সমস্ত মালামাল নষ্ট হয়ে যায়। এদিকে আগুন লাগার জন্য প্রশাসনের গাফেলতিকে দায়ী করছে ব্যবসায়িক মালিক সমিতি। আগুন লাগার সময় বৈদ্যুতিক সংযোগ সাথে সাথে বন্ধ করলে হয়তো এতো বড় দুর্ঘটনা ঘটতো না বলে দাবি করেন তারা।

ব্যবসায়িক মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. বাবুলের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ দুই মালিককে ক্ষতিপূরণ, পরবর্তীতে এধরনের ঘটনা যেন না ঘটে সেজন্য বিশেষ কমিটি গঠন ও বাজারে একটি কেন্দ্রীয় সার্কিট ব্রেকারের ব্যবস্থার করতে হবে। শুক্রবার সন্ধ্যায় আমরা নিজেদের মধ্যে মিটিংয়ের পর দোকান খোলার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানাবো।

তবে দোকানপাট বন্ধ রাখায় শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগের কথা মাথায়ই আনছেন না মালিকেরা।

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]