top3

বিসিবির চিঠি ছিনতাইয়ের অভিযোগে মামলা!

By ওয়ান নিউজ বিডি

October 11, 2017

জামালপুর: জামালপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি আহমেদ কবীরের কাছে আসা একটি চিঠি ছিনতাই ও ছিনতাইয়ের অভিযোগে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদকসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। গত সোমবার চিঠি বহনকারী কুরিয়ার সার্ভিসের কর্মী মামলাটি করেন। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পক্ষ থেকে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতির কাছে ওই চিঠি পাঠানো হয়েছিল।

পুলিশ ও জেলা ক্রীড়া সংস্থা সূত্র জানায়, গত রোববার বিসিবির একটি চিঠি সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসে আসে। ওই সার্ভিসের এক কর্মী জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি আহমেদ কবীরের কাছে চিঠিটি পৌঁছানোর সময় বিকেলে শহরের কলেজ মোড় এলাকায় তিন ব্যক্তি সেটি ছিনিয়ে নেন। এ ঘটনার এক দিন পর গত সোমবার ওই কুরিয়ার সার্ভিসের অফিস সহকারী জাহিদ মোল্লা বাদী হয়ে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল ফুয়াদ, অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক সুহেল রানা ও সদস্য আব্দুল আউয়ালেরবিরুদ্ধে দ্রুত বিচার আইনে মামলা করেন।

সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল ফুয়াদ বলেন, ‘পুরো ঘটনাটি একটি সাজানো নাটক। আমি কেন চিঠি ছিনতাই করতে যাব? গত রোববার সভাপতি আহমেদ কবীরের নামে একটি চিঠি সংস্থার কার্যালয়ে কুরিয়ার সার্ভিসের এক কর্মী পৌঁছে দেন। পরে ওই চিঠি কার্যালয় থেকে আমার বাসায় দিয়ে যায়। চিঠিটি পাওয়ার পর আমি নিজে সভাপতির কাছে ফোন দিই। তাঁকে (সভাপতি) চিঠি সম্পর্কে বিস্তারিত জানাই। তিনি চিঠি নিয়ে সোমবার তাঁর কার্যালয়ে আমাকে যেতেও বলেন। এরপরই হঠাৎ করে ওই কুরিয়ার সার্ভিসের কয়েকজন কর্মী আমার বাসায় এসে চিঠিটি ফেরত চান। তখন তাঁরা (কুরিয়ার কর্মী) জানান, ওপর থেকে চিঠি নিতে চাপ দেওয়া হচ্ছে। তাহলে এখানে ছিনতাইয়ের প্রশ্ন আসে কী করে? এরপর হঠাৎ করে গত সোমবার সন্ধ্যায় জানতে পারি, চিঠি ছিনতাইয়ের অভিযোগে আমার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।’ তিনি বলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে এবং তাঁকে সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে সরাতে এ ধরনের একটি মামলা করা হয়েছে।

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের জামালপুর প্রধান কার্যালয়ের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক আহম্মদ আলী বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে কী বলব, বুঝতে পারছি না।’ তাঁর কর্মীর কাছ থেকে কীভাবে চিঠি ছিনতাই হলো জানতে চাইলে তিনি আর কোনো কথা বলতেও রাজি হননি।

জামালপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাছিমুল ইসলাম বলেন, চিঠি ছিনতাইয়ের অভিযোগে ওই কুরিয়ার সার্ভিসের একজন অফিস সহকারী মামলা করেছেন। চিঠিটি উদ্ধার ও আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীর বলেন, ‘বিসিবির কাউন্সিলর মননোয়নের একটি চিঠি সারা বাংলাদেশেই সভাপতির নামে এসেছে। কিন্তু আমার চিঠিটি এখনো পাইনি। তবে সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল ফুয়াদ ফোনে বিসিবির কাউন্সিলর মননোয়নের বিষয়ে কথা বলেছেন। কিন্তু চিঠিটি যে আমার নামে ছিল, তা তিনি বলেননি। শুনেছি, চিঠি ছিনতাইয়ের বিষয়ে মামলা হয়েছে। এ বিষয়ে কুরিয়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা ভালো বলতে পারবেন।’