পৃথিবীতে জন্ম নেওয়ার আগে মঙ্গলে থাকতেন রাশিয়ার এই যুবক!

boriska

boriskaডেস্ক রিপোর্ট: পৃথিবীতে জন্ম নেওয়ার আগে নাকি মঙ্গলে থাকতেন। সেখানকার প্রাণীদের বিস্তারিত বর্ণনাও দিয়েছেন রাশিয়ার যুবক ২০ বছর বয়সী বরিস্কা।

এরপর থেকেই তাকে এক প্রকার মানুষরূপী এলিয়েনই মনে করেছিলেন বিজ্ঞানীরা।

বরিস্কার মা-বাবা জানান, ছোটবেলা থেকেই বরিস্কা মহাকাশ, গ্রহ উপগ্রহ নিয়ে একাধিক কথা বলতেন। অথচ এগুলোর কোনও কিছুই সেই বয়সে তিনি পড়েননি। এমনকী ভিনগ্রহের প্রাণী এবং সেখানকার সভ্যতা নিয়েও কথা বলতেন বরিস্কা। মাত্র ২ বছর বয়সেই অনায়াসে লেখাপড়া করতে পারতেন তিনি। তাতে অবাক হয়ে গিয়েছিলেন চিকিৎসকরাও।

সবচেয়ে অবাক করে দিয়ে বিজ্ঞানীদের বরিস্কা বলেছিলেন, মঙ্গলগ্রহের প্রাণীরা সাধারণত সাত ফুট লম্বা হন। সেখানে এখনও প্রাণের অস্তিস্ত আছে। লালগ্রহের অভ্যন্তরে তাঁরা বাস করেন।

কার্বনডাই অক্সাইডেই চলে শ্বাসপ্রশ্বাস প্রক্রিয়া। পারমাণবিক বিপর্যয়ের কারণেই মঙ্গল গ্রহের উপরে আর প্রাণের অস্তিত্ব নেই। সেখানকার প্রাণীরা নাকি অমর এবং ৩৫ বছর হলেই তাদের বয়স থমকে যায়।

বরিস্কা আরও জানান, প্রযুক্তিগত দিক থেকে মানুষের তুলনায় অনেক বেশি আধুনিক। তারা এক নক্ষত্র থেকে অন্য নক্ষত্রে ভ্রমণ করতে পারেন। প্রাচীন মিশরের সঙ্গে মঙ্গল গ্রহের প্রাণীদের গভীর যোগসূত্র ছিল। সেসময় মঙ্গলগ্রহের যানের চালক হিসেবে পৃথিবীতে এসেছিলেন তিনি। বরিস্কার একাধিক বক্তব্যে ধন্ধে পড়ে গিয়েছেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা।

সূত্রঃ নিউজ উইয়ার ডটকম।

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]