চাঁপাইনবাবগঞ্জে জঙ্গি আস্তানায় বিস্ফোরণ, আটক তিন

চাঁপাইনবাবগঞ্জ: জেলার সদর উপজেলার চর আলাতুলি গ্রামে জঙ্গি আস্তানায় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও জঙ্গিদের মধ্যে গ্রেনেড ও গুলি বিনিময়ের এক পর্যায় এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

পরে ওই বাড়ির মালিক রাশিকুলসহ তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। বাড়ির মালিক ছাড়া আটককৃত অপর দুই জন হলেন, রাশিকুলের স্ত্রী নাজমা ও তাঁর শ্বশুর খোরশেদ আলম। রাশিকুলের বাড়ি গোদাগাড়ীর চড় আষাড়িয়াদহ গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের মো. পাকুরের ছেলে।

রাজশাহী র‌্যাব-৫ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল মাহাবুব আলম বলেন, বাড়ির মালিকদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। তবে তারা জঙ্গিবাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত কিনা তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে। তিনি আরও বলেন, এই জঙ্গি আস্তানায় কারা যাতায়াত করত সেটি হয়তো বাড়ির মালিকসহ আটককৃতরা জানেন। এই জন্য তাদের আটক করা হয়েছে। আবার তারা নিজেরাও জঙ্গিবাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত কিনা সেটিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

স্থানীয়রা জানান, গোদাগাড়ীর চর আষাড়িয়াদহ গ্রামের বাসিন্দা রাশিকুল চার বছর আগে বাড়ি করেন চর আলাতুলির দূর্গম চরে। এরপর থেকে সেখানে স্ত্রী সন্তান নিয়ে বসবাস করতেন। নাটোরসহ বাইরের এলাকা হতে অনেক মানুষের যাওয়া-আসা ছিল ওই বাড়িতে। বাইরের লোকজনের যাতায়াতে স্থানীয়দের মাধ্যে সন্দেহ সৃষ্টি হয়। স্থানীয়রা জিজ্ঞাসাবাদ করলে তাদের জানানো হয়, একটি এনজিওর কাজে এসেছি এবং চর এলাকার বিদেশী পাখি শিকার করব।

র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান মঙ্গলবার সকালে সাংবাদিকদের জানান, র‌্যাব সদস্যরা রাত থেকে ঘিরে রাখে বাড়িটি। এরপর থেকে জঙ্গিদের বারবার আত্মসমর্পণের আহবান জানানো হয়। কিন্তু বাড়ির ভেতর থেকে দুই দফায় বিস্ফোরণ ঘটায় জঙ্গিরা। জঙ্গি আস্তানায় আরও বিস্ফোরক থাকতে পারে।
এর আগে মঙ্গলবার দিবাগত ভোর ৪টা থেকে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে বাড়িটি ঘিরে রাখে র‌্যাব-৫। এদিকে জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালাতে ঢাকা থেকে রওনা দিয়েছে সোয়াট সদস্যরা। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চর আলাতুলি গ্রামের একটি বাড়ি ঘেরাও করে জঙ্গিদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানানো হয়। এসময় জঙ্গিরা বাড়ির ভেতর থেকে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গ্রেনেড নিক্ষেপ ও গুলি করে। এ সময় র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। এরপর বাড়িটিতে আগুন লেগে যায়।