বান্দরবানে ছাত্রলীগের হামলায় ৪ কনস্টেবল আহত

bandarban

bandarbanবান্দরবান: তুচ্ছ ঘটনায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হামলায় চার পুলিশ কনস্টেবল আহত হয়েছেন। এসময় পুলিশের আরও তিন সদস্য পালিয়ে রক্ষা পেয়েছেন। এ ঘটনায় পুলিশ মো. এরশাদ নামে এক ছাত্রলীগ কর্মীকে আটক করেছে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় বান্দরবান শহরের রাজার মাঠ এলাকায় এই হামলার ঘটনা ঘটে।

আহত পুলিশ সদস্যদের সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তারা হলেন- কনস্টেবল মো. শাহারিয়ার (২০), সাখাওয়াত হোসেন (২২), হাসান আল মামুন (২১) এবং নাজমুল হাবিব (২০)।

আহত কনস্টেবল শাহারিয়ার ও হাসান জানান, রাজার মাঠে কয়েকজন যুবক বেপরোয়া গতিতে মোটর সাইকেল চালানোর সময় সেখানে থাকা পুলিশ কনস্টেবলরা বাধা দেয় তাদের। এ নিয়ে ঐ যুব্কদের সাথে পুলিশ কনস্টেবলদের কথা কাটাকাটি হয়। পরে স্থানীয়রা বিষয়টি মীমাংসাও করে দেয়। কিন্তু পুলিশ কনস্টেবলরা রাজার মাঠ হতে সরে যাওয়ার সময় কিছু দূরে আসলে একদল যুবক লাঠিসোটা নিয়ে তাদের উপর হামলা করে। এতে ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়। প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানান, হামলাকারী যুবকরা ছাত্র লীগের নেতাকর্মী ছিল।

এদিকে পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার দায়ে মোঃ এরশাদ নামের এক ছাত্রলীগ কর্মীকে আটক করেছে। শহরের বিভিন্ন স্থানে হামলাকারীদের ধরতে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।

এদিকে রাতে খবর পেয়ে সদর হাসপাতালে আহতদের দেখতে যান পুলিশ সুপার সজ্ঞিত কুমার রায়সহ উর্ধতন কর্মকর্তরা। পুলিশ সুপার জানান, ঘটনাটি দুঃখজনক। পুলিশ সদস্যদের মারাত্মকভাবে মারধোর করা হয়েছে। তবে হামলাকারীদের গ্রেফতারে পুলিশ কাজ করছে বলে জানান পুলিশের এসপি।

এ বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জনি সুশীল সাংবাদিকদের জানান, সামান্য বিষয় ছাত্র লীগের নেতা কর্মীদের সাথে পুলিশের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়েছে মাত্র। কোন পুলিশের উপর হামলা চালানো হয়নি।

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]