affwk33_ann_ 336X280BD-[E:JA17]

মোস্তফা জব্বার মন্ত্রী’র দায়িত্ব পাওয়ায় কম্পিউটার সমিতি যশোর শাখার শুভেচ্ছা

mustafa jabbarযশোর: মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য এবং প্রাক্তন সভাপতি জনাব মোস্তাফা জব্বারকে বাংলাদেশ সরকারের মন্ত্রীপরিষদে পূর্ণ মন্ত্রী হিসেবে গুরু দায়িত্ব প্রদানের জন্য বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি যশোর শাখার পক্ষ থেকে পক্ষ হতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি যশোর শাখার চেয়ারম্যান শেখ আহসান উল-হক ও সেক্রেটারী পার্থ প্রতীম দেবনাথ রতিসহ নেতৃবৃন্দ।

বিবৃতিতে উল্লেখ করেন, সহস্রাব্দের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আজীবন স্বপ্নলালিত সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার প্রত্যয়ে মাননীয় জননেত্রী কর্তৃক ঘোষিত দিন বদলের কর্মসূচী “ভিশন- ২০২১” বাস্তবায়নে অগ্রণী ভূমিকা পালনকারী হিসেবে ২ জানুয়ারি মোস্তাফা জব্বার শপথ গ্রহণ করেছেন। একবিংশ শতাব্দীর বিশ্বায়ন ও অবাধ তথ্য প্রবাহের যুগে নিঃসন্দেহে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিশেষ এক নতুন মাত্রা যোগ করেছেন এবং তা হচ্ছে “ডিজিটাল বাংলাদেশ” প্রতিষ্ঠার দৃঢ় প্রত্যয়। তথ্য প্রযুক্তির সর্বোচ্চ ব্যবহার বিষয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এবং তাঁর সুযোগ্য সহকর্মী হিসেবে জনাব মোস্তাফা জব্বার-এর যথাযথ জ্ঞান ও তা বাস্তবায়নে সদিচ্ছা ও অগ্রণী ভূমিকা “ডিজিটাল বাংলাদেশ” প্রতিষ্ঠার পথ সুগম হলো বলে আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি।

দেশের তথ্য প্রযুক্তি শিল্পের প্রধান বাণিজ্য সংগঠন বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত এই শ্লোগান ও কর্মসূচীর সাথে একাত্ম ঘোষণা করে বিভিন্ন কর্মসূচী ঘোষণা করেছে এবং এ লক্ষ্য অর্জনে দেশব্যাপী কর্মকান্ড পরিচালনা করে যাচ্ছে। আমরা কখনো বিস্মৃত হবো না এবং যে বিষয়টি প্রতি মূহুর্তে স্মরণ করে আমরা গর্ব অনুভব করি, তা হচ্ছে জনাব মোস্তাফা জব্বারসহ ১১ সদস্যের প্রয়াসে ১৯৮৭ সালে প্রতিষ্ঠিত এ সংগঠনটি ১৯৯৮ সালে কম্পিউটার এবং এর সংশ্লিষ্ট যন্ত্রাংশ ও যন্ত্রপাতির উপর থেকে যাবতীয় শুল্ক প্রত্যাহারের যুগান্তকারী আন্দোলনে নেতৃত্ব প্রদান করে, যা আমাদের জাতীয় জীবনের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লিপিবব্ধ হয়ে রয়েছে। দল-মত নির্বিশেষে একথা সকলেই স্বীকার করেন যে, আমাদের দেশে বর্তমানে যে সংখ্যক কম্পিউটার ব্যবহারকারী সৃষ্টি হয়েছে এবং এ খাতের যতটুকুই অগ্রগতি হয়েছে তা কেবল সম্ভব হয়েছিল উক্ত আন্দোলন এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত উদ্যোগ ও দূরদৃষ্টিসম্পন্ন সদিচ্ছার কারণেই। জনাব মোস্তাফা জব্বার মোট ৪ বার সভাপতি হিসেবে নেতৃত্ব দিয়েছেন ঐতিহ্যবাহী এ সংগঠনটির। অতএব, “ডিজিটাল বাংলাদেশ” প্রতিষ্ঠার যে ঘোষণা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দৃপ্ত কণ্ঠে ব্যক্ত করেছেন তা বাস্তবায়নে তাঁর ব্যক্তিগত উদ্যোগ ও উপদেশনা দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের প্রতিনিধিত্বকারী বাণিজ্য সংগঠন হিসেবে জনাব মোস্তাফা জব্বারকে সর্বোত্ত সহায়তা প্রদানে আমরা সদা প্রস্তুত রয়েছি।