জয়পুরহাট

কালাইয়ে সেই স্কুল ছাত্রীর উপর হামলাকারী ডিবি’র হাতে গ্রেফতার

By ওয়ান নিউজ বিডি

February 13, 2018

চঞ্চল বাবু, কালাই (জয়পুরহাট): লোমহর্ষক হামলার এক বছরের মাথায় জয়পুরহাটের কালাইয়ে সেই স্কুল ছাত্রীর উপর হামলার ঘটনায় পলাতক আসামী হারুনকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। গতকাল সোমবার বিজ্ঞ আদালতে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা (আইও) জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি মনিরুজ্জামান।

দীর্ঘ দিন পর জয়পুরহাটের পুলিশ সুপার মামলাটির প্রকৃত রহস্য উদ্ঘাটনে ডিটেকটিভ ব্র্যাঞ্চ (ডিবি) পুলিশের কাছে স্থানান্ত করেন। এদিকে ওই স্কুল ছাত্রীর চিকিৎসা শেষে জয়পুরহাট চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জবানবন্ধী রেকর্ড করার পর উপজেলার বানদিঘী গ্রামে তার মা-বাবার কাছে ফিরে যান।

জানা গেছে, দুর্বৃত্তদের হামলার শিকার ওই স্কুল ছাত্রী ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) চিকিৎসা শেষে জয়পুরহাটে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে উপস্থিত করা হয়। সেখানেই হামলার তথ্য সম্বলিত জবানবন্ধী রেকর্ড করা হয়। ওই ছাত্রীর দেয়া তথ্য অনুযায়ী মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জয়পুরহাটের ডিবি ইন্সপেক্টর (ওসি) মনিরুজ্জামান বিভিন্ন তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে নিশ্চিত হয়ে বানদিঘী গ্রামের মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে হারুনকে (৪০) গ্রেফতার করে। পরে তিনি বিজ্ঞ আদালতে ৭ দিন রিমান্ড চেয়ে আবেদন করে। কিন্তু আদালত আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারী রিমান্ড শুনানীর দিন ধার্য করেন।

উল্লেখ্য, গত ২০১৬ সালের ২৩ ডিসেম্বর শুক্রবার রাতে উপজেলার বানদিঘী গ্রামে ওই স্কুল ছাত্রীর বাড়ির দেয়াল টপকিয়ে দুর্বৃত্তরা প্রথমে তার বাবা-মার ঘরের দরজায় শিকল তুলে দেয়। এরপর ওই ছাত্রীর শয়ন কক্ষে প্রবেশ করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে আঘাত করে ক্ষতবিক্ষত ও বিবস্ত্র অবস্থায় ফেলে রেখে তারা পালিয়ে যায়। ওই দিনই স্বজনেরা তাকে প্রথমে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। কিন্তু তার অবস্থার আরও অবনতি হলে পরের দিন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) উন্নত চিকিৎসার জন্য স্থানান্তর করা হয়। জয়পুরহাটের ডিবি ইন্সপেক্টর (ওসি) মনিরুজ্জামান হারুনের গ্রেফতার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।