অতীতের ভুল থেকে শিক্ষা নিয়েছে বিএনপি: তোফায়েল

tofayal

tofayalভোলা: দুর্নীতির মামলায় বেগম খালেদা জিয়ার সাজার প্রতিবাদে বিএনপির শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিকে দলটির অতীত থেকে শিক্ষা হিসেবে দেখছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

বুধবার দুপুরে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ভোলার উপ-শহর বাংলা বাজার ফাতেমা খানম কলেজ মিলনায়তনে এক আলোচনায় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতা এই মন্তব্য করেন।

বর্তমান সরকারের দুই মেয়াদে বিএনপি আন্দোলনের যত কর্মসূচি দিয়েছে, তার মধ্যে সম্প্রতি ঘোষণা করা কর্মসূচিগুলো সবচেয়ে নমনীয়। ২০১৩, ২০১৪ ও ২০১৫ সালে নির্বাচন ঠেকানো এবং সরকার পতনের কর্মসূচিগুলো সহিংস হয়ে উঠেছিল। তবে ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়ার সাজার পর মানববন্ধন, অনশন, মিছিল, সমাবেশ, গণস্বাক্ষরের মতো কর্মসূচি পালন করছে বিএনপি।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘বিএনপি অতীতে ভুল থেকে শিক্ষা নিয়েছে। এর ফলে দলটি এখন শান্তিপূর্র্ণ কর্মসূচি পালন করছে। তারা ২০১৩. ২০১৪ ও ২০১৫ সাল থেকে এই শিক্ষা নিয়েছে যে, অরাজকতা করে কোন লাভ নেই।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলা নিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সাজা আদালতের বিচারেই হয়েছে। এখানে আমাদের কিছু করার নেই।… খালেদা জিয়ার বিচার আদালত করেছেন। বর্তমান সরকার করেনি। তাই এ ব্যাপারে আমরা মন্তব্যও করি না। ’

আগামী নিবার্চন বর্তমান সরকারের অধীনে হবে সেটি আবার জানিয়ে তোফায়েল বলেন, ‘নির্বাচন কালীন সরকার দৈনন্দিন কাজ করবে। কিন্তু নির্বাচন পরিচালনা করবে নির্বাচন কমিশন। এর বাইরে আর কিছু হওয়ার সম্ভাবনা নেই। যারা তত্ত্বাবধায়ক ও সহায়ক সরকারের স্বপ্ন দেখেন তারা সেই স্বপ্ন ভুলে যান।’

আওয়ামী লীগ সরকারের অবদান তুলে ধরে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আওয়ামী লীগ যদি ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় না আসত তাহলে আমরা স্বাধীনতার চেতনার মূল্যবোধ পুনঃস্থাপন করতে পারতাম না। ২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসার পরে দেশে মানবতাবিরোধী অপরাধী ও বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার করেছে। প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদরর্শী নেতৃত্বে দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে রয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল দাবি করে আগামী নির্বাচনে আবার আওয়ামী লীগকেই ক্ষমতায় আনার আহ্বান জানান বাণিজ্যমন্ত্রী।

কলেজের অধ্যক্ষ আবুল কাশেমের সভাপত্বিতে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাবেক খাদ্যমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক, জাতীয় অধ্যাপক ইতিহাসবিদ মুনতাসির মামুন।

উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক সেলিম উদ্দিন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মমিন টুলু, পুলিশ সুপার মোকতার হোসেন, বাংলাবাজার ফাতেমা খানম কলেজের সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব, ভোলা চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

news portal website developers eCommerce Website Design