স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সভাস্থলে আ.লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১২

potuakali

পটুয়াখালী: পটুয়াখালীর বাউফল থানার নতুন ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের উপস্থিতিতেই আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত ১২ জন আহত হয়েছেন।

রোববার বেলা ১১টায় বাউফল থানা ভবনের অভ্যন্তরে বাউফলের স্থানীয় এমপি ও চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ এবং বাউফল পৌর মেয়র জিয়াউল হক জুয়েলের কর্মী সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে খোকন সরদার ও কামাল হোসেনসহ চার জনকে বাউফল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

potuakali

জানা যায়, বাউফল থানার নবনির্মিত ৪ তলা ভবনের উদ্বোধনের জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল রোবাবার বেলা ১১টার দিকে হেলিকপ্টার যোগে স্থানীয় পাবলিক মাঠে অতরণ করেন। এ সময় চিফ হুইপ আসম ফিরোজ এমপি এবং পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বাউফল পৌর সভার মেয়র জিয়াউল হক জুয়েল গ্রুপের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী মাঠের কাছে অবস্থান নেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সেখান থেকে পায়ে হেঁটে বাউফল থানা চত্বরে আসেন এবং তিনিসহ জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আসম ফিরোজ যৌথ ভাবে নতুন ভবনের উদ্বোধন করেন। এরপর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও চিফ হুইপকে বরিশাল ও পটুয়াখালী জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা থানা ভবনের সেমিনার কক্ষে নিয়ে যায়। এ সময় থানার বাউন্ডারির মধ্যে সভাস্থলে দুই গ্রুপের স্লোগান চলছিল। এক পর্যায়ে উভয় গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। দুই গ্রুপই সমাবেশস্থলে চেয়ার ছোড়াছুড়ি ও ভাঙচুর করে। এসময় বিপুল সংখ্যক পুলিশ তাদের শান্ত করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে লাঠি চার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনার জেরে পুরো উপজেলায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

news portal website developers eCommerce Website Design