‘আল্লাহ না করুক- আমরা বিরোধী দলে গেলেও আর হরতাল হবে না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মৌলভীবাজার: ডাকলেই হরতাল-অবরোধ হয় না মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, আল্লাহ না করুক- আমরা বিরোধী দলে গেলেও আর হরতাল হবে না।

শনিবার বিকেলে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সংলগ্ন মাঠে এক সুধী সমাবেশে তিনি একথা বলেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আগামী ডিসেম্বর মাসে দেশে ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হবে। আর সেই খেলায় রেফারি হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে নির্বাচন কমিশন। আওয়ামী লীগ খালি মাঠে নির্বাচন করতে চায় না। সাহস থাকলে বিএনপি যেন নির্বাচনে আসে।

তিনি বলেন, আর কিসের নির্দলীয় সরকার? ওটা মরে কবরস্থানে চলে গেছে। আর ফিরে আসবে না। নির্বাচন শেখ হাসিনার অধীনে হবে, সংবিধান অনুযায়ী হবে, সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আর ভুল করবেন না খালেদা জিয়া, মাঠে আসেন। বিএনপি বন্ধুদের বলবো- লড়াই হবে মাঠে, ইনশাআল্লাহ। এই নির্বাচনে বাংলার জনগণ জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ভোট দেবে।’

বিএনপিকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘মাঠে খেলা হবে দুই দলে। এবাবের নির্বাচন ইনশাল্লাহ হবে একসঙ্গে। রেফারি থাকবে নির্বাচন কমিশন। তাতে ভয় পান কেন?’

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আন্দোলন কত প্রকার কি কি আওয়ামী লীগ ছাড়া আর কেউ জানে না। আন্দোলনে চ্যাম্পিয়ন হয়ে এখানে দাঁড়িয়ে আছি। জনগন আন্দোলন চায় না। জনগন চায় কাজ, উন্নয়ন।

তিনি বলেন, হরতাল-অবরোধ ডাকলেই হয় না। আল্লাহ না করুক- আমরাও যদি কোনো সময় বিরোধী দলে যাই, আমরাও ডাকলে হবে না। মানুষ শান্তি চায়, স্বস্তি চায়। আর সেটা দিয়েছেন শেখ হাসিনা।’

এসময় স্বাস্থ্যমন্ত্রী, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন আলোকিত হয়ে গেছে। সরকার দেশের প্রতিটি জেলায় মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠা করছে। সেই ধারাবাহিতকায় অচিরেই মৌলভীবাজার জেলায় একটি মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠা করা হবে।

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে ৮ কোটি ৩২ লাখ ৬ হাজার ৭০১ টাকা ব্যয়ে বাস্তবায়িত ৩১ থেকে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন উপলক্ষে এই সুধী সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

সাবেক চিফ হুইপ ও সরকারি প্রতিশ্রুতি সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি উপাধ্যক্ষ মো. আব্দুস শহীদের সভাপতিত্বে এতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মৌলভীবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য মো. আবদুল মতিন, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব ডা. এহতেশানুল হক চৌধুরী প্রমুখ, মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান, মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নেছার আহমদ, সাধারণ সম্পাদক মিছবাউর রহমান, জেলা প্রশাসক তোফায়েল ইসলাম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালাল প্রমুখ।