সময় শেষ হচ্ছে ১ এপ্রিল : ৮৫ হাজার হজযাত্রীর নিবন্ধন সম্পন্ন

hoj

hojডেস্ক রিপোর্ট: সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় প্রাকনিবন্ধিত হজগমনেচ্ছু যাত্রীদের জন্য ধর্ম মন্ত্রণালয়ের বেধে দেয়া নিবন্ধন কার্যক্রমের সময়সীমা আগামী ১ এপ্রিল শেষ হচ্ছে। প্রাকনিবন্ধিত হজগমনেচ্ছুদের নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয় ১ মার্চ।

প্রথম দফায় ধর্ম মন্ত্রণালয় ২২ মার্চ ও সর্বশেষ ১ এপ্রিল পর্যন্ত নিবন্ধনের সময়সীমা বেধে দেয়। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নিবন্ধন কার্যক্রমে কাঙ্ক্ষিত সাড়া না পাওয়ায় সময়সীমা বৃদ্ধি করা হয়।

মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ১ এপ্রিলের পর হজ ও ওমরাহ নীতি-১৪৩৯ হিজরি/২০১৮ খ্রি. এর ৩.১.৮ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী পরবর্তী ক্রমিক থেকে নিবন্ধন সম্পন্ন করা হবে। সে ক্ষেত্রে পূর্বঘোষিত ক্রমিকের প্রাকনিবন্ধিত আর কেউ নিবন্ধনের সুযোগ পাবেন না।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের একাধিক দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে, ১ মার্চ থেকে আজ (২৫ মার্চ) দুপুর পৌনে ১২টা পর্যন্ত সরকারি ব্যবস্থাপনায় পাঁচ হাজার ৮৪০ জন ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৭৮ হাজার ৬৩২ জন নিবন্ধিত হয়েছেন। মোট ৫৪৭টি এজেন্সির মাধ্যমে এ সকল হজযাত্রীর নিবন্ধন সম্পন্ন হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সৌদি সরকারের সঙ্গে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের করা হজ চুক্তি অনুসারে বাংলাদেশ থেকে সরকারি ব্যবস্থাপনায় সাত হাজার ১৯৮ ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এক লাখ ২০ হাজার যাত্রীর হজপালনের অনুমতি রয়েছে। আজ দুপুর পর্যন্ত প্রাপ্ত পরিসংখ্যান অনুসারে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এখনও প্রাকনিবন্ধনকারীদের মধ্যে ৪২ হাজার ৭৩৬ জনের নিবন্ধন বাকি রয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব (হজ) হাফিজুর রহমান সঙ্গে আলাপকালে জানান, সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রীরা প্রথমে ২৮ হাজার টাকা জমা দিয়ে প্রাকনিবন্ধন করেছেন। এখন যে প্যাকেজের অধীনে হজে যাবেন, সেই প্যাকেজের বাকি টাকা জমা দিয়ে নিবন্ধন করতে হচ্ছে।

সরকারি ব্যবস্থাপনায় প্যাকেজ-১ এর আওতায় হজে যেতে এবার তিন লাখ ৯৭ হাজার ৯২৯ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এর আওতায় তিন লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকা লাগবে।

প্রাকনিবন্ধনের সময় জমা দেয়া ২৮ হাজার টাকা বাদে প্যাকেজ-১ এর হজযাত্রীদের তিন লাখ ৬৯ হাজার ৯২৯ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এর যাত্রীদের তিন লাখ তিন হাজার ৩৫৯ টাকা ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নির্ধারিত ব্যাংকে জমা দিতে হচ্ছে।

যেসকল ব্যক্তি ২০১৫, ২০১৬ ও ২০১৭ সালে হজ করেছেন অথবা ভিসা পেয়েও হজে যাননি তাদের মধ্যে যারা এবার হজ করবেন তাদের অতিরিক্ত ৪৬ হাজার ৯৩৫ টাকা ওই অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে পরিশোধ করতে হবে। কেউ আলাদা ফ্লাইটে হজে যেতে চাইলে অবশ্যই আলাদাভাবে নিবন্ধন করতে হবে।

উল্লেখ্য, আগামী ১৪ জুলাই হজ ফ্লাইট শুরুর কথা রয়েছে আর চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ২১ অাগস্ট হজ হতে পারে।সূত্র: জাগো নিউজ

news portal website developers eCommerce Website Design