LY1Y2K

চীনে ৬০ হাজার লোকের ভিড়ে অপরাধী শনাক্ত করল স্মার্ট ক্যামেরা

smart cc cameraআন্তর্জাতিক ডেস্ক: চীনে এখন আর অপরাধ করে পার পেয়ে যাওয়া কোনোভাবেই সম্ভব নয়। কারণ সিসিটিভির মতো স্মার্ট ক্যামেরা ব্যবহার করে অপরাধীকে শনাক্ত করা সেখানে খুবই সহজ ব্যাপার।

সম্প্রতি এমন ঘটনায় ঘটেছে দেশটিতে। কনসার্ট হলে জড়ো হওয়া ৬০ হাজার মানুষের ভিড়ের মধ্যে থেকেও এক অপরাধীকে খুঁজে বের করেছে দেশটির পুলিশ।

অপরাধীর যথাযথ অবস্থান জানতে ফেসিয়াল রিকগনিশন টেকনোলজি বা মুখবায়ব চিহ্নিতকরণ প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়। স্মার্ট ক্যামেরার এমন কেরামতিতে তাজ্জব হয়ে গেছে খোদ অপরাধীও।

শুক্রবার বিবিসির এক খবরে বলা হয়, গত সপ্তাহে চীনের ন্যানচ্যাং শহরে জনপ্রিয় পপতারকা জ্যাকি চিয়াংয়ের এক কনসার্ট থেকে গ্রেফতার করা হয় সন্দেহভাজন অওকে।

‘আর্থিক জালিয়াতি অপরাধে’র কারণে পুলিশ তাকে খুঁজছিল। পুলিশ জানায়, যখন তাকে গ্রেফতার করা হয়, ৩১ বছর বয়সী অও ‘তাজ্জব’ বনে যায়। তাকে শনাক্ত করা হয় কনসার্টের টিকিট কাউন্টারে থাকা স্মার্ট ক্যামেরার মাধ্যমে।

গ্রেফতারের সময়ে কনসার্ট শুনতে আসা অন্যদের সঙ্গে নিজের আসনে বসা ছিল সে। শিনহুয়াকে পুলিশ কর্মকর্তা লি জিন বলেন, ‘সে (অপরাধী) চিন্তাই করেনি, ৬০ হাজার মানুষের এই ভিড়ের মধ্যে পুলিশ তাকে শনাক্ত করে এত দ্রুত গ্রেফতার করতে পারে।’

চায়না ডেইলি জানায়, কনসার্ট হলের টিকিট কাউন্টারগুলোতে ফেসিয়াল রিকগনিশন প্রযুক্তিসমৃদ্ধ বেশ কয়েকটি স্মার্ট ক্যামেরা বসানো রয়েছে। সম্প্রতি চীনজুড়ে এ ধরনের প্রায় ১৭ কোটি সিসিটিভি বসিয়ে নাগরিকদের ওপর নজরদারির বিশাল নেটওয়ার্ক গড়ে তুলেছে চীন সরকার।

স্মার্ট ক্যামেরা দিয়ে অপরাধী শনাক্ত করার ঘটনা দেশটিতে এটাই প্রথম নয়। এর আগে গত বছরের আগস্টে ২৫ অপরাধীকে আটক করে শানডং প্রদেশের পুলিশ।

ফেসিয়াল রিকগনিশন প্রযুক্তির ক্ষেত্রে বিশ্বে নেতৃত্বের পর্যায়ে রয়েছে চীন। দেশের প্রত্যেকটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান ছাড়াও রাস্তার মোড়ে মোড়ে সিসি ক্যামেরা বসিয়েছে দেশটি।

সম্প্রতি সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট জানায়, রাস্তায় কেউ ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করলে মোড়ের টিভি পর্দায় দেখানো হবে তার ছবি।