LY1Y2K

বিএনপি ক্ষমতায় এলে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে জড়িতদের বিচার করবে

abdur razakটাঙ্গাইল: আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পরই স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি রাজাকার, আলবদর ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কাজ শুরু করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বঙ্গবন্ধুর হত্যকারীদের বিচার শুরু করেন। কিন্তু বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াসহ নেতাকর্মীরা বলেছেন এটা কোনো বিচার না, যাদের বিচার হয়েছে তারা নাকি যুদ্ধাপরাধী ছিল না। বিএনপি কোনো দিন ক্ষমতায় এলে শুধু আওয়ামী লীগ নয়, এই বিচার কাজে যারা জড়িত ছিলেন তাদের সবার বিচার করবে।

রোববার দুপুরে টাঙ্গাইল শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যানে জেলা ছাত্রলীগ আয়োজিত পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বিএনপি একটি সন্ত্রাসী দল। কানাডার আদালত বলেছে যারা বিএনপি করে তারা সন্ত্রাসী। ভবিষ্যতেও বিএনপি রাজনীতিতে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করবে। এসব সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।

তিনি আরও বলেন, কোটা সংস্কার আন্দোলনের নামে বিভ্রান্তি ও রাজনৈতিক ইস্যু সৃষ্টির চেষ্টা করা হয়েছিল। তা হতে দেয়নি আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা। যেমনি আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা হেফাজতকে মোকাবেলা করেছে, জামায়াতকে মোকাবেলা করেছে, জঙ্গিদের নাশকতা মোকাবেলা করেছে, বিএপির তিন মাসের হরতাল অবরোধ মোকাবেলা করেছে। তার দক্ষতা, সততা ও সাহসীকতা আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা কোটা আন্দোলনকারীদের মোকাবেলা করেছে। এর ফলেই থেমে গেছে কোটা আন্দোলন।

টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মোস্তাফিজুর রহমান সোহেলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান খান ফারুক, টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জোয়াহেরুল ইসলাম, রাজনৈতিক বিশ্লেষক সুভাষ সিংহ রায়, টাঙ্গাইল সদর-৫ আসনের সংসদ সদস্য ছানোয়ার হোসেন, নাগরপুর-দেলদুয়ার-৬ আসনের সংসদ সদস্য খন্দকার আবদুল বাতেন, কালিতাতী-৪ আসনের সংসদ সদস্য হাসান ইমাম সোহেল হাজারী, বাসাইল-সখীপুর-৮ আসনের সংসদ সদস্য অনুপম শাহজাহান জয়, টাঙ্গাইল সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য মনোয়ারা বেগম, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আশরাফউজ্জামান স্মৃতি, টাঙ্গাইল পৌরসভার মেয়র জামিলুর রহমান মিরন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।