LY1Y2K

ভারত সফরে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ প্রতিনিধিদল

awami league logo - lig logoডেস্ক রিপোর্ট: আগামী ২২শে এপ্রিল আওয়ামী লীগের ২০ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল ভারত সফরে যাচ্ছে। প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেবেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। রোবাবর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি একথা জানান। এর আগে দলের ধর্ম বিষয়ক উপ-কমিটির সঙ্গে বৈঠকে অংশ নেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের জানান, বিজেপির আমন্ত্রণে তারা ভারত সফর করবেন। সেখানে পার্টি টু পার্টি আলোচনা হবে।
প্রতিনিধিদলে থাকছেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য পীযূষ কান্তি ভট্টাচার্য, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, একেএম এনামুল হক শামীম, মিজবাহ উদ্দিন সিরাজ ও মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মৃনাল কান্তি দাস, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক শাম্মী আহম্মেদ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক আব্দুস সবুর, ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, সদস্য গোলাম কবির রাব্বানী চিনু ও এসএম কামাল হোসেন।

সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের বলেন, পহেলা বৈশাখে দেশের প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য রেখেছেন। তিনি বিএনপিকে কটাক্ষ করে কোনো বক্তব্য দেননি। কোনো রাজনৈতিক বক্তব্যও তিনি দেননি।

আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, আমি নিজে বাহাদুর শাহ পার্কে যে বক্তব্য দিয়েছি তা অপজিশনকে আক্রমণ করে দেইনি। অথচ পহেলা বৈশাখের দিনেও বিএনপি নোংরা রাজনীতিতে মেতে উঠেছে। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক। এতো সুন্দর একটা দিনকে তারা নোংরা রাজনীতির কাজে লাগিয়েছে।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, দেশে বর্তমানে শান্তি আছে, স্থিতিশীলতা আছে। এটা বিএনপি সইতে পারছে না। তাই পহেলা বৈশাখের স্বতঃস্ফূর্ত, কালারফুল উদযাপনও তাদের ভালো লাগেনি।

তিনি বলেন, কোটা সংস্কার আন্দোলনকে কেন্দ্র করে বিএনপি যে নতুন খোয়াব দেখেছিল তা প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের মধ্য দিয়ে কর্পূরের মতো উড়ে গেছে, হারিয়ে গেছে। তাদের আর কোনো নতুন ইস্যু নেই। তাদের মাঠে নামার কোনো অবস্থাও নেই।