কুমিল্লায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১৪ মামলার আসামি নিহত

কুমিল্লা: কুমিল্লায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১৪ মামলার এক আসামি নিহত হয়েছেন।

বুধবার দিবাগত রাত ২টার দিকে বুড়িচং উপজেলার কংশনগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় জেলা ডিবি পুলিশের ওসিসহ তিন সদস্য আহত হয়েছেন। গ্রেফতার করা হয়েছে তিনজনকে।

পুুলিশ জানিয়েছে, নিহত আবদুল হালিম ডাকাত দলের একজন সদস্য। তিনি উপজেলার বাজেবাহেরচর গ্রামের মফিজুল ইসলাম মাবুর ছেলে।

পুলিশ আরও জানায়, কংশনগর এলাকার একটি ইটভাটার সামনে কুমিল্লা-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কে ১৪-১৫ জনের সশস্ত্র ডাকাত দলের ডাকাতির প্রস্তুতির খবরে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আল-মামুন ও তানভীর সালেহীন ইমন, ডিবির ওসি নাসির উদ্দিন মৃধাসহ জেলা ডিবির পৃথক তিনটি টিম ওই এলাকায় বিশেষ অভিযান চালায়।

তারা জানায়, এ সময় ডাকাতরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তাদের লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। এতে ডিবির ওসি নাসির উদ্দিন মৃধা, কনস্টেবল আবদুল্লাহ ও সাইফুল ইসলাম জখম হন। এ সময় পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে।

ডিবির এসআই শাহ কামাল আকন্দ জানান, উভয়পক্ষের গোলাগুলি চলাকালে ডাকাতদের গুলিতে আবদুল হালিম নামে এক ডাকাত গুলিবিদ্ধ হন। পরে আহত হালিম, জাকির হোসেন ও লিমন সরকারকে গ্রেফতার করা হয়।

তিনি জানান, এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি রিভলবার, এক রাউন্ড গুলি, দুইটি ধারালো ছুরি, একটি রামদা উদ্ধার করা হয়। আহত ডাকাতকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এসআই শাহ কামাল জানান, নিহত ডাকাত আবদুল হালিমের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ১৪টি ও গ্রেফতার ডাকাত জাকিরের বিরুদ্ধে পাঁচটি মামলা রয়েছে। বন্দুকযুদ্ধের এ ঘটনায় ডিবির এসআই সহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে বুড়িচং থানায় পৃথক তিনটি মামলা করেছেন।

বিষয় : কুমিল্লা

news portal website developers eCommerce Website Design