আ’লীগ-বিএনপি-জাতীয় পার্টি একসঙ্গে আন্দোলনে

দিনাজপুর: মেলার নামে জুয়া, হাউজি, লটালিসহ বিভিন্ন অপকর্ম বন্ধের দাবিতে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে দিনাজপুরের বীরগঞ্জ।এসব অপকর্ম বন্ধে সড়কে নেমেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ-বিএনপি-জাতীয় পার্টি-মুক্তিযোদ্ধাসহ সর্বস্তরের মানুষ। তারা ঠাকুরগাঁও-দিনাজপুর মহাসড়ক অবরোধ করেছে।

সোমবার রাতে বীরগঞ্জ শহীদ মিনার মোড়ে অবস্থান নিয়ে এ মহাসড়ক অবরোধ করে।
সূত্র জানায়, রাত ৯টা থেকে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলসহ সর্বস্তরের হাজার হাজার মানুষ বীরগঞ্জ শহীদ মিনার মোড়ে অবস্থান নিয়ে এ মহাসড়ক অবরোধ করে। এ সময় সেখানে তারা বিক্ষোভ সমাবেশ করেন।

ফলে ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়ের সঙ্গে রাজধানীর সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়।

এর পর রাত ১০টায় বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ তোফাজ্জল হোসেন, বীরগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সালাহউদ্দীন, বীরগঞ্জ থানার ওসি সাকিলা পারভীন অবরোধস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করে।

এ সময় বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ তোফাজ্জল হোসেন ঘোষণা দেন, আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই জনস্বার্থে এ মেলা বন্ধ করা হবে। এ সময় তিনি অবরোধ কর্মসূচি তুলে নেয়ার আহ্বান জানান।

এ ঘোষণায় অবরোধকারীরা রাত সোয়া ১০টায় অবরোধ তুলে নেয়। এর পরই মহাসড়কে আবারও যান চলাচল শুরু হয়।

অবরোধকারীরা বলেন, আমাদের আলটিমেটাম আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টার মধ্যে মেলা পুরোপুরি বন্ধের ঘোষণা না দিলে আবার অবরোধ কর্মসূচি শুরু করা হবে।

এদিকে দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক ড. আবু নঈম মুহাম্মদ আবদুছ ছবুর জানান, এই মেলার অনুমতি জেলা প্রশাসন দেয়নি। যেহেতু তারা হাইকোর্টের একটি আদেশ নিয়ে এ মেলা শুরু করেছে, সেহেতু আইনী প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই মেলা বন্ধ করতে হবে।

দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার ৬নং নিজপাড়া ইউনিয়নের প্রেমবাজার এলাকায় গত রোববার রাত থেকে মেলার নামে শুরু হয় জুয়া, হাউজি, লটারিসহ নানান অপকর্ম।

স্থানীয় সচেতনমহল স্থানীয় প্রশাসনের কাছে এসব অপকর্ম বন্ধের দাবি জানায়। কিন্তু তা বন্ধ না হওয়ায় সোমবার রাত ৯টায় স্থানীয় সব রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিকসহ হাজার হাজার মানুষ বীরগঞ্জ শহীদ মিনার মোড়ে এসে অবরোধ কর্মসূচি শুরু করে।

news portal website developers eCommerce Website Design