চুয়াডাঙ্গায় প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় স্কুল ছাত্রীকে ছুরিকাঘাত!

শামসুজ্জোহা পলাশ, চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গায় প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ৮ম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে ছুরিকাঘাত করে গুরুতর জখম করেছে চিহ্নিত বখাটে রানা। স্কুল ছাত্রী বুধবার (২৫ এপ্রিল) সকালে নিজ বাড়ি থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাওয়ার পথে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার হাজরাহাটি গ্রামে স্থানের কাছে এ হামলার ঘটনা ঘটে। গুরুতর জখম ওই স্কুল ছাত্রীকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রাখা হয়েছে। তার নাম লিমা খাতুন (১৪)। সে চুয়াডাঙ্গা রাহেলা খাতুন গালর্স একাডেমির ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী।
ঘটনার সংবাদ পেয়ে পুলিশের একাধিক টিক অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাড়ে ৪ ঘন্টার মাথায় বখাটে রানাকে পাশ্ববর্তী আলমডাঙ্গা থানা এলাকা থেকে আটক করতে সক্ষম হয়। রানা চুয়াডাঙ্গা শহরের সর্দার পাড়ার লিয়াকতের ছেলে।

প্রত্যক্ষর্দশীরা জানান, চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার হাজরাহাটি গ্রামের আব্দুর রহমানের মেয়ে লিমা সকালে স্কুলের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলো। সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে সে গ্রামের অদুরে একটি কবর স্থানের কাছে পৌছালে পিছন থেকে তাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় চিহ্নিত বখাটে রানা। পরে স্থানীয়রা ওই শির্ক্ষাথীকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের সার্জারী কনসালটেন্ট ডা. ওয়ালিউর রহমান নয়ন জানান, ছুরিকাঘাতের স্থানটি কিডনির ঠিক একটু নিচে হওয়াতে প্রচুর রক্ষক্ষরণ হয়েছে। শিক্ষার্থীকে গভীর পর্যবেক্ষনে রাখা হয়েছে। ২৪ ঘন্টা পার না হলে কোন কিছু বলা ঠিক হবে না।

জখম ওই শিক্ষার্থী জানান, চুয়াডাঙ্গা শহরের সর্দার পাড়ার লিয়াকতের ছেলে রানা দীর্ঘদিন ধরে স্কুলে যাওয়া আসার পথে আমাকে প্রেমের প্রস্তাব দিতো। তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়াতে বিভিন্ন সময়ে আমাকে হত্যার হুমকি দিতো।

পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান জানান, বখাটে রানাকে গ্রেফতারে পুলিশের বেশ কয়েকটি টিমকে মাঠে নামানো হয়। বেলা দেড়টার দিকে জেলার আলমডাঙ্গা থানা এলাকা থেকে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ তাকে আটক করতে সক্ষম হয়।

news portal website developers eCommerce Website Design