শ্রমিকদেরকে ‘তুই’ করে বলা যাবে না : বিমানমন্ত্রী

shahajan

shahajanলক্ষ্মীপুর: বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল বলেছেন, শ্রমিকদেরকে ‘তুই’ করে বলা যাবে না। একজন রিকশাওয়ালাকেও আপনি করে বলতে হবে। তাদের সম্মান করে কথা বলতে হবে। শ্রমিকদের সমাদর করবেন। তাদের বিপদ-আপদে এগিয়ে যাবেন।

মঙ্গলবার দুপুরে লক্ষ্মীপুর কালেক্টরেট ভবন প্রাঙ্গণে শ্রমিক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিমানমন্ত্রী বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শ্রমিকবান্ধব ছিলেন। বঙ্গবন্ধু শ্রমিকদের অধিকার আদায়ের জন্য জাতীয় শ্রমিক লীগ গঠন করেন। তিনি শ্রমিকদের সঙ্গে আপনি করে কথা বলতেন। শ্রমিকদের জন্য ৮ ঘণ্টা কাজ করার সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। এর বেশি কাজ করতে বললে আপনারা কেউ করবেন না। এটা আপনাদের গণতান্ত্রিক অধিকার, বাঁচার অধিকার।

তিনি বলেন, স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু ২২ কোটি টাকা ব্যয়ে রায়পুরের রাখালিয়ায় একটি টেক্সটাইল মিল করে দিয়েছেন। ভাগ্যের নির্মম পরিহাস খালেদা জিয়া রায়পুর আসনের এমপি হওয়ার পর লক্ষ্মীপুরের জনগণের বুকে লাথি মেরে সেই টেক্সটাইল মিলটা বন্ধ করে দিয়েছে। পরে টেক্সটাইল মিলটা ওই এলাকার একজন শিল্পপতির কাছে ৫ কোটি টাকায় বিক্রি করে দিয়েছেন। এভাবে খালেদা জিয়া ও তার ছেলে তারেক রহমান হাওয়া ভবনে বসে কোটি কোটি টাকা লুটপাট করে নিয়ে গেছে। বিশ্বের বড় বড় ব্যাংকগুলোতে টাকাগুলো এখনও আছে।

বিমানমন্ত্রী বলেন, শিশুদেরকে গার্মেন্টস, পরিবহন ও নির্মাণ শ্রমিকসহ বিভিন্ন পেশায় কাজ করতে দেখা যায়। কিন্তু শিশুশ্রম বেআইনি এবং জঘন্য অপরাধ। আইন অনুযায়ী ১২ বছরের নিচে কোনো শিশু শ্রমিক হতে পারে না।

শ্রমিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, শ্রমিকদেরকে তাদের অধিকার আদায় করে নিতে হবে। তাদের সম্মান আদায় করে নিতে হবে। তবে বেআইনিভাবে আপনারা হরতাল করবেন না, মিল-কারখানা বন্ধ রাখবেন না।

জেলা প্রশাসক অঞ্জন চন্দ্র পালের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন- অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রিয়াজুল কবির, সিভির সার্জন ড. মোস্তফা খালেদ আহম্মদ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুর নয়ন, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম সালাহ উদ্দিন টিপু, জেলা শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক মামুনুর রশিদ ও যুগ্ম-আহ্বায়ক ইউছুফ পাটওয়ারী প্রমুখ।

এর আগে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ও শ্রমিক লীগের সহযোগিতায় একটি বর্ণাঢ্য র্যালি বের করা হয়। জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে আগত বিপুল সংখ্যক শ্রমিক র্যালিতে অংশগ্রহণ করেন।

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]