গাজীপুরে ভোট কবে, জানা যাবে রোববার

gazipur city corporation

gazipur city corporationঢাকা: আপিল বিভাগের আদেশের পর গাজীপুর সিটি নির্বাচনের পথ খুলে গেছে। তবে কবে এই নির্বাচনের ভোট হবে, তা আগামী রোববার জানা যাবে। আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে বৃহস্পতিবার বিকেলে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

তিনি বলেন, ‘আগামী ১৫ মে গাজীপুর সিটি করপোরেশনে নির্বাচন করা সম্ভব নয়। তবে ১৩ মে রোববার কমিশনে সভা আছে। সভা থেকে নির্বাচনের দিন ধার্য করা হবে।’

ইসি সচিব বলেন, ‘গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগ। একইসঙ্গে ২৮ জুনের মধ্যে ভোট করার নির্দেশনা দিয়েছেন। আদেশের অনুলিপি পেয়েছি, প্রধান নির্বাচন কমিশনার এবং অন্যান্য নির্বাচন কমিশনারদের নির্দেশনা পেয়েছি। স্বল্প সময়ের মধ্যে নির্বাচন কিভাবে করা যায়, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’

ঈদুল ফিতরের পরে হবে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এটা আমি এখন বলব না। কারণ, দু’জন নির্বাচন কমিশনার খুলনা আছেন। সবাই বসে বিধি অনুযায়ী তারিখ ঠিক করবেন।’

হেলালুদ্দীন বলেন, ‘একটা নির্বাচন বন্ধ হয়ে গেছে। এখানে আইন-কানুনের বিষয় আছে। আবার কতদিনের মধ্যে শুরু করতে হবে, তারিখ ইত্যাদি বিষয় জড়িত। তবে এজন্য পুনঃতফসিল করার প্রয়োজন হবে না।’

সিইসির সঙ্গে বৃহস্পতিবার বিকেলে দেখা করে খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এজেন্ট দিতে পারবে না- এমন অভিযোগ করার পাশাপাশি তিন পুলিশ কর্মকর্তার প্রত্যাহার চেয়েছে বিএনপি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বিএনপির অভিযোগ সিইসি অবশ্যই বিবেচনা করবেন এবং পরে উনারা বসে এ বিষয়ে করণীয় নির্ধারণ করবেন।’

নির্বাচনের চার দিন আগে বিএনপির অভিযোগ কতটুকু যুক্তিসঙ্গত জানতে চাইলে ইসি সচিব বলেন, ‘এই মুহূর্তে কাউকে প্রত্যাহারের বিষয়টি কমিশন মনে হয় বিবেচনা করবেন না। অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন যাতে হতে পারে এবং যে অভিযোগগুলো বিএনপি করেছে, তা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘খুলনায় সরকারের নির্দেশে সহায়তাকারী অফিসারকে দেয়া হয়নি। নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে রিটার্নিং অফিসারকে সহায়তা করার জন্য দেয়া হয়েছে।’

উল্লেখ্য, তফসিল অনুযায়ী আগামী ১৫ মে গাজীপুর সিটি করপোরেশনে ভোট গ্রহণের দিন ছিল। কিন্তু, এক রিট আবেদনের পর হাইকোর্ট এই নির্বাচন তিন মাসের জন্য স্থগিত করেন।

পরে এখানকার আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম, বিএনপির প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার এবং নির্বাচন কমিশন (ইসি) এই আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করেন।

বৃহস্পতিবার সেই তিনটি আপিলের শুনানি শেষে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করে আগামী ২৮ জুনের মধ্যে ইসিকে নির্বাচন করার আদেশ দিয়েছেন।

news portal website developers eCommerce Website Design