নাবালক-নাবালিকার বিয়ে নিবন্ধন করলেন কাজী

ফরিদপুর: ফরিদপুরের মধুখালীতে সদ্য এসএসসি পাস করা এক ছাত্র ও নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া স্কুলছাত্রীর বাল্য বিয়ের নিবন্ধন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্থানীয় এক নিকাহ রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে।

গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে উপজেলার বাগাট ইউনিয়নের রায়জাদাপুর গ্রামে এ বাল্যবিয়ের নিবন্ধন করা হয়।জানা যায়, ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার বাগাট ইউনিয়নের মুন্সীপাড়ার বাসিন্দা মোস্তাক শেখের ছেলে সদ্য এসএসসি পাস করা সাগর শেখ (১৬) এর সঙ্গে একই ইউনিয়নের রায়জাদাপুর গ্রামের বাসিন্দা নায়েব শেখের কন্যা বাগাট উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী হোসনে আরার (১৪) প্রেমের সম্পর্ক চলছিল।

প্রেমের সূত্র ধরেই মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে হোসনে আরার সঙ্গে তার গ্রাম রায়জাদাপুরে দেখা করতে যায় সাগর। হোসনে আরার বাড়ির সামনে তার সঙ্গে সাগর দেখা করতেই স্থানীয় লোকজন সাগরকে আটকে ফেলে। পরবর্তীতে সাগরের পরিবারের লোকজনকে খবর দিয়ে সেখানে নেয়া হয়। এরপর হোসনে আরা ও সাগরের বিয়ে দেয়া হয়। এই বিয়ে নিবন্ধন করেন বাগাট ইউনিয়নের নিকাহ রেজিস্ট্রার মাহাবুবুর রহমান।

বিয়েতে উপস্থিত থাকা স্থানীয় খোকন ও শামীম জানায়, সাগর ও হোসনে আরার বিয়ের বয়স হয়নি একথা বলার পরও উপস্থিত ব্যক্তিরা তাদের বিয়ে দিয়ে দেয়। বার বার আমরা নিকাহ রেজিস্ট্রার মাহাবুবুর রহমানকে বলেছিলাম তিনি কোনো কথাই শুনেননি। তারা আরও জানায়, নিকাহ রেজিস্ট্রারের বাড়ি হোসনে আরার বাড়ি সংলগ্ন হওয়ায় তিনি বিয়ে দিতে বেশি উৎসাহী হয়ে পড়েন।

বাগাট ইউনিয়নের নিকাহ রেজিস্ট্রার মাহাবুবুর রহমান বলেন, বিয়ে হয়েছে ঠিকই। আমি বিয়ে নিবন্ধন করিনি।মধুখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোস্তফা মনোয়ার বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। খোঁজ নিয়ে দেখব। ঘটনার সত্যতা পেলে নিকাহ রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]