কম খরচে বেশি লাভ কালার পপকর্ন চাষে

দিনাজপুর: বীজ, সার ও কীটনাশক খরচ কম এবং চাহিদা বেশি কালার পপকর্ন পরীক্ষামূলক চাষ করে লাভবান হয়েছেন দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার গোয়ালডিহি গ্রামের কৃষক গোলাম রব্বানী।

বাজারে ভুট্টার প্রতি কেজি ১২-১৪ টাকা হলে কালার পপকর্ন প্রতি কেজি ৩৮-৪০ টাকায় বিক্রি হয়। বিভিন্ন রংয়ের হওয়ায় মানুষের কাছে আকর্ষণীয় এবং দামও ভাল পাওয়া যায়। তাই কৃষি অফিসের সহায়তা নিয়ে এটা বাণিজ্যিকভাবে চাষ করা হলে বাজার সৃষ্টির পাশাপাশি কৃষক লাভবান হবে।

নভেম্বর-ডিসেম্বরে জমিতে বীজ বপন করতে হয় এবং এপ্রিলের শেষে ফলন পাওয়া যায় বলে কৃষি বিভাগ জানায়।
কৃষক গোলাম রব্বানী জানান, অষ্ট্রেলিয়া হতে আমদানীকারক বীজ ডিলার সিদ্দিক সিডসের পরামর্শক্রমে দেড় হাজার টাকায় ৪০০ গ্রাম কালার পপকর্নের বীজ কিনে ৫ শতক জমিতে পরীক্ষামূলকভাবে আবাদ করি। এতে বীজ, সার, চাষাবাদসহ মাত্র ৩ হাজার টাকা খরচ হয়। ফলন হওয়া ১১০ কেজি পপকর্ন সাড়ে ৫ হাজার টাকায় বিক্রি করি। ভুট্টা ও সাধারণ পপকর্নের চেয়ে সার ও কীটনাশক খরচ এতে কম লাগে বলেও তিনি জানান।

এ ব্যাপারে খানসামা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. আফজাল হোসেন জানান, কালার পপকর্ন দেখতে অনেক সুন্দর হওয়ায় বাজারে ভাল প্রভাব ফেলবে বলে আশা করা যাচ্ছে। এর বাজার সৃষ্টি করতে পারলে বাংলাদেশেও আবাদ করা সম্ভব হবে। ভুট্টার দানা বড় এবং কালার পপকর্নের দানা ছোট হয়। এ এলাকায় রফিকুল ও গোলাম রব্বানী নামে দুই কৃষক পরীক্ষামূলকভাবে চাষ শুরু করেছেন। কৃষি বিভাগের পরামর্শ নিয়ে কৃষকরা এই চাষ করলে বেশি লাভবান হবেন।

news portal website developers eCommerce Website Design