খালেদার কারা ও রোগমুক্তি কামনায় মেলবোর্নে দোয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় এবং মুক্তির দাবিতে অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নের উইন্ডহ্যাম পার্ক কমিউনিটি সেন্টারে এক ইফতার ও দোয়া মাহফিলে অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত শনিবার মেলবোর্ন বিএনপির উদ্যোগে আয়োজিত এই দোয়া মাহফিলে খালেদা জিয়ার ছেলে প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকো এবংবিএনপি নেতা নাসির উদ্দিন আহমেদ পিন্টুর রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া করা হয়।

মেলবোর্ন বিএনপির সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ মনির সভাপতিত্বে এবং অস্ট্রেলিয়া ছাত্রদলের সভাপতি কায়াস মাহমুদ জনির পরিচালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন অস্ট্রেলিয়া বিএনপির সাবেক সভাপতি ও বর্তমান কুমিল্লা উত্তর জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মনিরুল হক জর্জ। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন অস্ট্রেলিয়া বিএনপির সিনিয়র নেত্রী ড. নার্গিস বানু এবং অস্ট্রেলিয়া বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল মতিন।

অনুষ্ঠানে মেলবোর্ন বিএনপি এবং অস্ট্রেলিয়া ও মেলবোর্ন ছাত্রদলের বিপুল সংখ্যক নেতা কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। অস্ট্রেলিয়া ছাত্রদলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল মোহাম্মদের সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মেলবোর্ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটম রহমান। বক্তারা সকলে কারাবন্দী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি জানান এবং নেত্রীর সুস্থতা কামনার জন্য দেশবাসীর নিকট দোয়া প্রার্থনা করেন।

মনিরুল হক জর্জ বলেন, বেগম খালেদা জিয়া মানে বাংলাদেশ। একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে এভাবে কারাগারে বন্দি করে রাখা কোনোভাবেই আমরা মেনে নিতে পারি না। বেগম খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের মা, আমাদের সকল নেতাকর্মীদের মা, মাকে কারাগারে বন্দি করে রেখে প্রতিহিংসামূলক রাজনীতির পরিচয় দেওয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

সভাপতির বক্তব্যে রিয়াজ উদ্দিন বলেন, বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে বন্দি রেখে দেশে আজকে আনন্দ উদযাপন করা হচ্ছে। আমরা এই অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাই এবং আল্লাহর কাছে বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় দোয়া করি। তিনি আরও বলেন, প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকো এবং নাসির উদ্দিন আহমেদ পিন্টুর অভাব আমরা কোনো ভাবেই পূরণ করতে পারব না, তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় দেশবাসীর কাছে দোয়া প্রাথর্না করছি।

অস্ট্রেলিয়া ছাত্রদল সভাপতি কায়াস মাহমুদ জনি তার বক্তব্যে বলেন, ”প্রতি বছর বেগম খালেদা জিয়া রমজানের প্রথম ইফতার এতিম শিশুদের নিয়ে পালন করেন, কিন্তু গতকাল (শুক্রবার) নেত্রীর চেয়ারটি খালি রেখে বিএনপির সিনিয়র নেতৃবৃন্দ এতিমদের সাথে ইফতার পালন করেন, এই দৃশ্য দেখে লক্ষ কোটি বাংলার জনতা চোখের জলে বুক ভাসিয়েছে।”

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ড. নার্গিস বানু বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে বন্দি রেখে বাংলাদেশে যদি কোনো জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়, তাহলে বাংলাদেশের মানুষ সেই নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করবে।

অস্ট্রেলিয়া বিএনপির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল মতিন বলেন, ”কারও দয়ায় নয়, অচিরেই বেগম খালেদা জিয়া সকল মামলায় বেকুসুর খালাস পেয়ে আমাদের মাঝে ফিরে আসবেন। কারণ তিনি( বেগম খালেদা জিয়া) সম্পূর্ণ নির্দোষ, তাকে অন্যায়ভাবে একের পর এক মামলায় বন্দি করে রাখা হয়েছে।”

এছাড়াও মেলবোর্ন ছাত্রদলের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সাদমান অঙ্কন, অস্ট্রেলিয়া ছাত্রদলের সহ সভাপতি শরীফ হোসেন এবং মেলবোর্ন ছাত্রদলের সদস্য মনির হোসেন ও সুজন খান বক্তব্য প্রদান করেন।

প্রসঙ্গত, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি ৫ বছরের সাজা ঘোষণার পর ওইদিন থেকেই পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দী রয়েছেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী।

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]