ইয়াবা ব্যবসায়ীর তালিকা থেকে আ’লীগ নেতাদের নাম বাদ নাদিলে আন্দোলন

yaba

কক্সবাজার: ইয়াবা কারবারীদের তালিকা প্রশ্নবিদ্ধ দাবি করে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ। মানববন্ধনে দাবি করা হয় ১১৫১ জন মাদক ব্যবসায়ী ও ৬০ জন গডফাদার হিসাবে যে তালিকা প্রকাশিত হয়েছে সেই তালিকা সঠিক নয়। তালিকায় স্থানীয় কিছু নিরপরাধ আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ নেতার নাম এসেছে বলে দাবি করা হয়। তাদের নাম বাদ নাদিলে আন্দোলনের যাবার হুমকি দিয়েছেন ক্ষমতাসীন দলটির নেতারা। সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত করে প্রকৃত মাদক ব্যবসায়ীদের তালিকা করে অভিযান চালানোর দাবি করে টেকনাফের সরকার দলীয় নেতারা।

yaba

সমাবেশে সাবেক সংসদ ও টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অভিযোগ করেন, বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে ইয়াবা ব্যবসায়ীর তালিকায় উপজেলা যুবলীগ সভাপতি নুরুল আলম, জেলা যুবলীগ সহ-সভাপতি আবুল কালাম, উপজেলা আওয়ামী লীগ যুগ্ম সম্পাদক মাহবুব মোর্শেদ, রাশেদ মোহাম্মদ আলী সহ অনেক নিরপরাদ ব্যক্তিদের নাম সেই তালিকায় রয়েছে (মাহাবুব মোরশেদ এ রাশেদ মো.আলী সাবেক সংসদ মোহাম্মদ আলীর ছেলে) তা সম্পূর্ণ ষড়যন্ত্রমূলক। যারা তালিকা করেছে তারা যদি অবৈধ মাদক ব্যবসায়ী জড়িত প্রমাণ দিতে পারে তবে আমরা নিজেরাই তাদেরকে আইনের হাতে তুলে দেব। অন্যত্থায় তারা সহ সকল নিরপরাধীদের নাম বাদ দিয়ে প্রকৃত ইয়াবা ব্যবসায়ী ও গডফাদারদের নাম তালিকাভুক্ত করার দাবি জানান তিনি।

প্রতিবাদ সমাবেশে উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক নুরুল বশর (ইয়াবার গডফাদার নুরুল আলম চেয়ারম্যানেরর ভাই) বলেন, যারা প্রকৃত ইয়াবা ব্যবসায়ী তাদেরকে শাস্তি দিন। যারা আওয়ামী পরিবারের নিবেদিত সৈনিক, যারা কোনদিন মাদক ব্যবসা করেনি তাদেরকে তালিকা থেকে বাদ দিন। যদি তা করা না হয় তাহলে লাগাতার আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন তিনি।

টেকনাফ উপজেলা যুবলীগ সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আলমসহ নিরপরাধ ব্যক্তিদের মাদক তালিকায় নাম রয়েছে বলে অপপ্রচারের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ।

২৪ মে বৃহস্পতিবার বিকেলে টেকনাফ পৌরসভার শাপলা চত্বর এলাকায় এ মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়। এতে উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মী অংশগ্রহণ করেন।

মানববন্ধন পরবর্তী প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সাবেক সাংসদ মোহাম্মদ আলী, সাধারণ সম্পাদক নুরুল বশর, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি নুরুল আলম, সাধারণ সম্পাদক নুর হোসেন চেয়ারম্যান, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সুলতান মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম মুন্না প্রমুখ।

এতে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক এজাহার মিয়া, দপ্তর সম্পাদক বদিউল আলম বদি, প্রচার সম্পাদক মো. ইউছুপ ভুট্টো, সদর আওয়ামী লীগ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নুর মোহাম্মদ গণি, সাধারণ সম্পাদক গুরা মিয়া, বাহারছড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আহবায়ক নুরুল হক, উপজেলা যুবলীগ সহ সভাপতি জিয়াউর রহমান, যুগ্ম সম্পাদক ফজল কবির, এবাদতুর রহিম বাদল, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক মোস্তাক আহমদ, দপ্তর সম্পাদক আব্দুল মতিন ডালিম, ক্রীড়া সম্পাদক নুরুল আমিন, সদস্য মুজিবুর রহমান খোকন, পৌর যুবলীগ আহবায়ক তোয়াক্কুল হোসেন, যুগ্ম আহবায়ক, রেজাউল করিম ধইল্যা, মো. হোসেন কাউন্সিলর, মো. আব্দুল্লাহ, হোয়াইক্যং ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি ফরিদুল আলম জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক শাহজালাল, হ্নীলা সভাপতি নুরুল আলম নুরু, সা. সম্পাদক মো. আনোয়ার, টেকনাফ সদর আহবায়ক আব্দুল ফারুক, যুগ্ম আহবায়ক মো. ইয়াকুব, আজিজুল হক, বাহারছড়া সভাপতি দেলোয়ার হোসেন, সম্পাদক আমজাদ হোসেন খোকন, সাবরাং ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি হুমায়ুন কবির, সম্পাদক নুরুল আলম, শাহপরীরদ্বীপ সভাপতি রেজাউল করিম রেজু, সম্পাদক মো. আমিন, জেলা ছাত্রলীগ সদস্য মো. শাহীন, উপজেলা ছাত্রলীগ সহসভাপতি আলি আকবর, মো. রফিক, জাহাঙ্গীর আলম, টেকনাফ ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুল ইসলাম সম্পাদক রিপন সহ উপজেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে অংশগ্রহণ করেন।

news portal website developers eCommerce Website Design