পূজা দেখতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রী

মানিকগঞ্জ: মানিকগঞ্জের ঘিওরে বাবার সঙ্গে পূজা দেখতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হয়েছে এক স্কুল ছাত্রী। মঙ্গলবার রাতের এই ঘটনায় তিনজনকে অভিযুক্ত করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন ধর্ষিতার ভাই। তবে কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

ধর্ষিতার ভাই জানান, তার বোন মানিকগঞ্জ শহরের একটি স্কুলে পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ে। বাবার সাথে ঘিওর উপজেলার কলতা গ্রামে এক আত্মীয়ের বাড়িতে পূজার অনুষ্ঠানে যান মঙ্গলবার রাতে। রাত ৮ টার দিকে অনুষ্ঠানস্থল থেকে তাকে ডেকে নিয়ে যায় একই গ্রামের জসিম মিয়ার ছেলে জনি (২০)। এরপর তাকে পাশের ফাঁকা মাঠে নিয়ে জনি ছাড়াও একই এলাকার বাবলু মিয়ার ছেলে রুবেল (২৬) ও ইয়াদ আলীর ছেলে শহিদুল ইসলাম (২৫) ধর্ষণ করে। পরে স্থানীয় কয়েকজন অভিযুক্তদের হাতে-নাতে ধরে ফেললেও পরে ছেড়ে দেয়া হয়।

ধর্ষিতার ভাই আরও জানান, ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দিতে স্থানীয় সমাজপতিরা তাদের মামলা না করতে চাপ দিতে থাকেন। ১ লাখ টাকা নিয়ে ঘটনা আপোষ মিমাংসা করতে বলেন তারা। এতে রাজি না হওয়ায় তার পরিবারের সদস্যদের হুমকি দেয়া হচ্ছে।এদিকে স্থানীয় ইউপি সদস্য মজিবুর রহমান আপোষের প্রস্তাব দেয়ার বিষয়টি স্বীকার করে।

ঘিওর থানার ওসি রবিউল ইসলাম জানান, জনি, রুবেল ও সহিদুলের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]