ছাত্রী উত্ত্যক্তের দায়ে রাবিতে ছাত্রকে স্থায়ী বহিষ্কার

ru logo

ru logoরাবি প্রতিনিধি: ভুয়া ফেইসবুক আইডি থেকে সহপাঠী ও সিনিয়রসহ একাধিক ছাত্রীকে উত্যক্ত করার দায়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আইন বিভাগের এক শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ওই শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বৃহস্পতিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৮০তম সিন্ডিকেট বৈঠকে তাকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। রাবি উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

বহিষ্কৃত ওই শিক্ষার্থীর নাম একেএম নাজমুল হাসান চৌধুরী শিশির। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ভুয়া ফেইসবুক আইডি থেকে আইন বিভাগের একাধিক ছাত্রীকে নানা কুরূচিপূর্ণ ও আপত্তিকর বার্তা ও ভিডিও পাঠানোর অভিযোগ ওঠে শিশিরের বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ২০ মার্চ শিশিরকে আটক করে পুলিশ। এ ঘটনায় শিক্ষার্থীরা মামলা না করায় পরদিন মুচলেকা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয় তাকে। এরপর গত ২৫ মার্চ ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা উত্যক্তের অভিযোগ এনে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য, উপ-উপাচার্য, ছাত্র উপদেষ্টা, আইন অনুষদের ডিন ও বিভাগের সভাপতির কাছে লিখিত অভিযোগ দেন।

আইন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক মো. আবদুল হান্নান বলেন, আমি এখনও এ ব্যাপারে কিছু জানি না। তবে ভূক্তভোগীরা যে অভিযোগ দিয়েছিল তা খতিয়ে দেখতে বিভাগ থেকে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছিল। সেই কমিটির প্রতিবেদন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের তদন্ত কমিটিকে দেয়া হয়।

বিভাগের সাবেক সভাপতি আবু নাসের মো. ওয়াহিদ বলেন, বিভাগ থেকে অভিযোগ তদন্ত করতে একটি কমিটি করা হয়েছিল। প্রতিবেদনে স্পর্শকাতর ও আপত্তিজনক তথ্য থাকায় তদন্ত কমিটির সদস্যরা একাডেমিক মিটিংয়ে প্রতিবেদন উম্মোচন না করতে অনুরোধ করে। পরে আমরা সেই প্রতিবেদন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের তদন্ত কমিটিকে দিয়ে দেই।

উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা বলেন, ভূক্তভোগীদের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছিল। সে কমিটির প্রতিবেদনে অভিযুক্ত শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে প্রমাণ পাওয়া যায়। সব তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে আজ তাকে সিন্ডিকেট মিটিংয়ে বহিষ্কার করা হয়।

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]