কুড়িগ্রামে ছাত্রীকে ধর্ষণের পর মামলা তুলে নিতে হুমকি

কুড়িগ্রাম: কুড়িগ্রামের রাজারহাটে ৮ম শ্রেনীর এক স্কুল ছাত্রী (১৩) কে জোরপূর্বক ধর্ষণ করার অভিযোগে মামলা করে ওই ছাত্রীর পরিবার। সেই মামলা তুলে নিতে অনবরত হুমকির শিকার হচ্ছে তারা।পুলিশ জানায়, উপজেলার চাকিরপশার ইউনিয়নের সোনাবর আমতলী গ্রামের এক স্কুল পড়ুয়া ছাত্রী বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দাদীর বাড়ীতে গাভীর দুধ দিয়ে বাড়ী ফিরছিল। পথে প্রতিবেশী শাহ আলমের লম্পট পুত্র সোহেল রানা তার মুখ চেপে ধরে সুপারি বাগানে তুলে নিয়ে গিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

এ সময় ধর্ষিতার আত্মচিৎকারে লোকজন ছুটে আসলে ধর্ষক সোহেল রানা পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসীরা গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে রাজারহাট হাসপাতালে ভর্তি করে। ওই ছাত্রীর মা বাদি হয়ে রাজারহাট থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলা দায়ের হওয়ার দিন রাতে ধর্ষকের পিতা শাহআলমসহ তার মামা ধর্ষিতার খবর নিতে হাসপাতালে গিয়ে মামলা তুলে নেয়ার হুমকী দিয়েছে বলে হাসপাতালের প্রত্যক্ষদর্শী ও ধর্ষিতার পরিবারের লোকজন জানিয়েছেন।

রাজারহাট থানার ওসি মো. মোখলেসুর রহমান বলেন, ধর্ষিতার আলামত সংগ্রহের জন্য ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। আসামিকে গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

news portal website developers eCommerce Website Design