কুশিয়ারা নদীর বাঁধ ভেঙ্গে ২৫ গ্রাম প্লাবিত

bonna

মৌলভীবাজার: এবার ভেঙ্গেছে কুশিয়ারা নদীর বাঁধ। সকাল থেকে পানি প্রবেশ করছে রাজনগরের উত্তরভাগ ইউনিয়নে। মনু ডাইকের উত্তরভাগ ইউনিয়নের হলদিগুল (কালাইগুল) এলাকায় বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে এই ভাঙ্গন দেখা দেয় আজ ভোর বেলা। এই পানি প্রবেশ অব্যাহত থাকায় উত্তরভাগ, মুন্সিবাজার ইউনিয়নের ২০/২৫ গ্রাম প্লাবিত হয়ে পড়েছে।

bonnaএদিকে খবর পাওযার সঙ্গে সঙ্গে সেনাবাহিনীর একটি টিম, পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত হয়ে এই ভাঙ্গন মেরামতের প্রাথমিক কাজ শুরু করেছেন। বস্তায় ভরা হচ্ছে মাটি, বাঁশ ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সংগ্রহ করা হচ্ছে।

এদিকে উত্তরভাগ ইউপি চেয়ারম্যান শাহ শাহিদুজ্জামান ছালিক সাংবাদিকদের জানান, এই ভাঙ্গনের কারণে ইতোমধ্যে ২০/২৫ গ্রাম প্লাবিত হয়ে পড়েছে। সময় বাড়ার সঙ্গে আরো বাড়বে। পানি উন্নয়ন বোর্ড ও অন্যান্য সূত্র থেকে জানা যায়, মনুনদীর উৎস মুখে পানি (ভারত থেকে নেমে আসা পানি) বৃদ্ধির কারণে সেখান থেকে নেমে আসা পানি ও বৃষ্টিপাত মিলে গত সপ্তাহের শুরু থেকে মনু কুশিয়ারা ও ধলাই নদীতে পানি বৃদ্ধি পায়। গত ১২ জুন রাত থেকে মনু ও ধলাই নদীর বন্যা প্রতিরক্ষা বাঁধের অন্তত (মনু প্রতিরক্ষা বাঁধে ১২, ধলাই বাঁধে ৬, কুশিয়ারা ১) ১৯ টি স্থানে ভাঙ্গনের ফলে জেলার কুলাউড়া, কমলগঞ্জ, রাজনগর উপজেলা, মৌলভীবাজার শহর ও সদর উপজেলা আংশিক বন্যা কবলিত হয়ে পড়ে। এখনো শহরের বড়হাট এলাকাসহ পশ্চিম অংশের কিছু স্থান থেকে বন্যার পানি নামেনি।

মৌলভীবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহকারি প্রকৌশলী মুখলেছুর রহমান মুঠোফোনে জানিয়েছেন, ভোর বেলা হলদিগুল নামক স্থানে এই ভাঙ্গন দেখা দেয়। ২৫/৩০ ফুটের এ ভাঙ্গনটি মেরামত করার জন্য ইতিমধ্যে কাজ শুরু হয়েছে। সেনাবাহিনী, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নিজস্ব লোক জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় ভাঙ্গনটি মেরামতের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

news portal website developers eCommerce Website Design