ইসলামী বন্ড চালু করছে সরকার : দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগে নতুন সম্ভাবনা

prize bond

ডেস্ক রিপোর্ট: বন্ড এক ধরণের ঋণপত্র যা ইস্যু করার মাধ্যমে ব্যাক্তি ও প্রাতিষ্ঠান বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করে। দেশে দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগের লক্ষ্যে চলতি বাজেটে শরিয়াহ ভিত্তিক সিকিউরিটিজ চালুর ইঙ্গিত দিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। সেই অনুযায়ী ইসলামী বন্ড চালু করছে সরকার। এই চালুর মাধ্যমে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীরা দীর্ঘমেয়াদে বিনিয়োগ সুবিধা পাবেন, তেমনি বড় অবকাঠামো নির্মাণ ও উন্নয়নমূলক প্রকল্পের জন্য অর্থ সংগ্রহ সহজ হবে, দেশের নিজস্ব অর্থায়নে প্রকল্প বাস্তবায়ন করা আরও সহজ হবে।

বিভিন্ন ধরণের সিকিউরিটিজ ব্যবহারের মাধ্যমে বন্ড মার্কেটের উন্নয়ন ঘটানোর লক্ষ্যে এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে জানান অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। তিনি আরও বলেন, দেশে ব্যাংকিং শিল্পে ইসলামী ব্যাংকিং এর হিস্যা প্রায় ২০ ভাগ হলেও এখনো শরিয়াহ ভিত্তিক সিকিউরিটিজ প্রচলন করা হয়নি। বর্তমানে আমরা শরিয়াহ ভিত্তিক সিকিউরিটিজ প্রচলনের বিষয়ে চিন্তাভাবনা করছি। রূপকল্প -২১ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সব স্তরে উন্নয়নের জন্য দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগে এই বন্ড ব্যবস্থাকে সাধুবাদ জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট মহল। অর্থনৈতিক উন্নয়নের দিক থেকে বাংলাদেশ প্রতিবেশী দেশ থেকে অনেক এগিয়ে। উন্নয়নের এই সূচক আরো ত্বরান্বিত করতে এই বন্ড ব্যবস্থা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

কাঙ্ক্ষিত জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে হলে বন্ড বাজারকে আরও শক্তিশালী করা দরকার। এ ছাড়া শরিয়াহ ভিত্তিক ইসলামিক বিকল্প বন্ড ‘সুকুক’ ইস্যুর মাধ্যমে সংগৃহীত অর্থ দিয়ে সেতু, মেট্রো রেল ও রেললাইন সম্প্রসারণসহ বহু প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণ করা সম্ভব বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

মুসলিম প্রধান দেশ হিসেবে অনেকে সুদের জন্য বিনোয়োগ করছে না। সুকুক বন্ড চালু হলে বিনিয়োগের পরিমান আরো বাড়বে বলে আশা করছেন ব্যাংক সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। শক্তিশালী বন্ড মার্কেট গড়ে তুলতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। এতে দীর্ঘমেয়াদে বিনিয়োগ সুবিধা পাবেন বিনিয়োগকারীরা। দেশের নিজস্ব অর্থায়নে অবকাঠামোগত উন্নয়ন আরো ত্বরান্বিত হবে, যার ফলে বাহিরের দেশের অর্থায়নের প্রয়োজন হবে না। আর এ ভাবেই স্বয়ংসম্পূর্ণ দেশ গড়তে ভূমিকা রাখবে বন্ড।

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]