শ্রীপুরে বাড়ি ঘিরে পুলিশের অভিযান, অস্ত্র ও বোমা উদ্ধার

ঢাকা: গাজীপুরের শ্রীপুরে দোতলা একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে আব্দুর রহমান (৩৭) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় তার ঘর থেকে ৩টি পিস্তল ও ৪টি বোমা উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ইতোমধ্যে আরো অভিযানের জন্য ঢাকা থেকে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল ওই বাড়িতে এসে পৌঁছেছে।

আটক আব্দুর রহমান দিনাজপুরের দেবীগঞ্জ উপজেলার কালীগঞ্জ গ্রামের হোসেন আলীর ছেলে।রোববার ভোরে শ্রীপুর পৌরসভার কেওয়া পশ্চিম খণ্ড (মাওনা আলহেরা হাসপাতাল) সংলগ্ন ওই বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়। প্রায় ১৩-১৫ সদস্যের এক দল পুলিশ ওই বাড়িটি নজরদারীতে রেখেছে।

বাড়ির মালিক পুলিশের অবসরপ্রাপ্ত হাবিলদার রফিকুল ইসলাম জানান, রোববার ভোর আনুমানিক ৪টায় ঢাকা পুলিশ সদর দফতরের এক দল পুলিশ তার বাসার নিচে আসে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এডিশনাল এসপি) পরিচয়ে তার মুঠোফোনে ফোন দিয়ে বাসার নিচে নামতে বলে। নিচে এলে বাসার নিচ তলার ঘর তল্লাশি করার কথা জানানো হয়।

তিনি বলেন, এক ঘণ্টা তল্লাশি শেষে ভোর ৫টায় আবার তাকে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে আসে পুলিশ। এ সময় তার নিচ তলার ভাড়াটিয়া আব্দুর রহমানকে আটক করে এবং তার ঘর থেকে ৩টি পিস্তল ও ৪টি বোমা পাওয়ার কথা জানায়। তবে পুলিশ তাকে একটি পিস্তল দেখালেও বোমাগুলো ভাড়াটিয়ার ঘরের টেবিলের ড্রয়ারে রেখে গেছেন, ঢাকা থেকে একদল পুলিশ এসে বোমাগুলো নিষ্ক্রিয় করবে বলে তাকে জানানো হয়।

তিনি আরও জানান, আব্দুর রহমান স্ত্রী পরিচয়ে শামসুন্নাহারকে নিয়ে দুই মাস আগে সাড়ে তিন হাজার টাকায় তার নিচ তলার একটি ঘর ভাড়া নিয়ে বসবাস করছেন। তিনি পেশায় প্রাইভেটকার চালক (ড্রাইভার) বলে বাড়ির মালিকের কাছে জানান। তবে স্থানীয় কোন রেন্ট-এ কার থেকে এবং কার প্রাইভেটকার ভাড়া নিয়ে চালাতেন সেটা জানাতে পারেননি।

news portal website developers eCommerce Website Design