রাবি সাংবাদিকের নামে হল প্রাধ্যক্ষের জিডি

রাবি প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শাহ মখদুম হল প্রাধ্যক্ষকে ‘হুমকি’ দেয়ার অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত এক সাংবাদিকের বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন ওই হলের প্রাধ্যক্ষ ড. মো. জাহাঙ্গীর আলম। গত মঙ্গলবার দুপুরে নগরীর মতিহার থানায় এই সাধারণ ডায়েরি দায়ের করা হয়।

অভিযুক্ত মো. মেহেদী হাসান দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার রাবি প্রতিনিধি এবং ফোকলোর বিভাগের ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বুধবার নগরীর মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদাত হোসেন জানান, মঙ্গলবার মতিহার থানায় মেহেদী হাসানের বিরুদ্ধে ড. মো. জাহাঙ্গীর আলম সাধারণ ডায়েরি দায়ের করেন। সাধারণ ডায়েরির নম্বর ‘জিডি-১১৪৫’।

সাধারণ ডায়েরিতে প্রাধ্যক্ষ ড. জাহাঙ্গীর আলম উল্লেখ করেন, ‘সে (মো. মেহেদী হাসান) দীর্ঘদিন যাবত শাহ্ মখদুম হলের এবং কর্মকর্তা কর্মচারীদের সাথে অশোভন আচরণ করে আসছে। অতি সম্প্রতি সে এক প্রাধ্যাক্ষকে এক কোপে গলা কেটে নেয়া, দায়িত্বরত ব্লক সুপারকে অফিসিয়াল কর্তব্য পালনকালে পেটাানো এবং প্রয়োজনে গলা কেটে নেয়ার হুমকি প্রদানসহ অশ্লীল ভাষা ব্যবহার করে চলেছে। হলে অবৈধভাবে বসবাসকারী ও অ-ছাত্র এই ব্যক্তির আপত্তিকর আচরণ, মিথ্যাচারের কারণে বিগত সময়ে তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ (কপি সংযুক্ত) সম্প্রতি আরো বেশি অনিয়ম, মিথ্যাচার, হুমকি ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিসহ অফিস কার্যক্রমে বাধা প্রদান করছে, যা বিশ্ববিদ্যালয়, বর্তমান সরকারের ভাবমূর্তি ও অগ্রচিন্তার পরিপন্থী এবং নৈরাজ্য ও জঙ্গিবাদ সহায়ক। এমতাবস্থায়, শাহ্ মখদুম হল তথা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শান্তিশৃঙ্খলা এবং হলের আবাসিক শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীগণের নিরাপত্তার বিষয়টি আমলে এনে আপনার থানায় সাধারণ ডায়েরি লিপিবদ্ধ করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করছি।’

এ বিষয়ে অভিযুক্ত মেহেদী হাসান বলেন, ‘হল প্রধ্যাক্ষকের প্রত্যক্ষ মদদে সিট বাণিজ্য শিরোনামে গত তিন বছর আগে আমি একটি নিউজ করেছিলাম। এরপর থেকেই হল থেকে বের করে দেয়ার জন্য তিনি আমার বিরুদ্ধে লেগে আছেন। শুধু জিডি না তিনি আরো কি কি যেন করে বেড়াচ্ছেন। আমাকে নানা রকম অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজও করেছেন। একজন শিক্ষক কখনোই ছাত্রের সঙ্গে এমন ভাষায় গালিগালাজ করতে পারে না। তিনি ব্যক্তিগত আক্রশ থেকেই আমার সাথে এমন করছেন বলে জানান তিনি।’

এদিকে মেহেদী হাসানের বিরুদ্ধে একই অভিযোগে আজ বুধবার দুপুরে প্রধ্যক্ষ ড. জাহাঙ্গীর আলম উপাচার্য বরাবর একটি অভিযোগপত্রও দিয়েছেন।

news portal website developers eCommerce Website Design