প্রকাশক বাচ্চু হত্যার প্রধান আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

police

policeডেস্ক রিপোর্ট: মুন্সীগঞ্জে লেখক ও প্রকাশক শাহজাহান বাচ্চু হত্যার প্রধান পরিকল্পনাকারী জেএমবি সদস্য আব্দুর রহমান গ্রেফতারের দুইদিন পর কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। সিরাজদিখান উপজেলার বালুচর এলাকায় বুধবার গভীর রাতে পুলিশের সঙ্গে জঙ্গিদের বন্দুকযুদ্ধের এই ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। এসময় উদ্ধার করা হয়েছে আগ্নেয়াস্ত্র ও মোটরসাইকেল।

মুন্সীগঞ্জ জেলা ইন্টেলিজেন্ট অফিসার (ডি আই ওয়ান) মো. নজরুল ইসলাম জানান, ২৪ তারিখে পুলিশের কয়েকটি টিম একত্রে অভিযান চালিয়ে গাজীপুর থেকে গ্রেফতার করে আব্দুর রহমানকে। বাকি আসামিদের ধরার জন্য বুধবার রাত একটার দিকে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান থানার খাসমহল বালুরচরে তাকে তাদের ভাড়া বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়।

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বাকিরা পালিয়ে যায়। আব্দুর রহমানকে নিয়ে ফিরে আসার সময় পুলিশের ওপর হামলা চালায় রহমানের সঙ্গীরা।

আব্দুর রহমানকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করার সময় পুলিশও পাল্টা হামলা চালালে আব্দুর রহমান নিহত হন।

এসময় সিরাজদিখান থানার তিন পুলিশ সদস্য এএসআই দেলোয়ার, হাসান এবং কনস্টেবল মোশারফ আহত হন।

জঙ্গীরা দুই মাস ধরে খাস মহল বালুরচরে একটি বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতো বলে জানায় পুলিশ।

এ ঘটনায় হ্যান্ড গ্রেনেড, আগ্নেয়াস্ত্র ও মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

গত ১১ জুন বিকেলে একটি ফোন পেয়ে বাড়ি থেকে বের হন শাহজাহান বাচ্চু। পরে সিরাজদিখান উপজেলার পূর্ব কাকালদি গ্রামের একটি ওষুধের দোকানে বসে সময় কাটান।

ইফতারির আগ মুহূর্তে দুটি মোটরসাইকেলযোগে চারজন অজ্ঞাত যুবক এসে সড়কে বোমা ফাটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে এবং বাচ্চুকে ওই দোকান থেকে বের করে গুলি করে হত্যা করে।

এ ঘটনায় বাচ্চুর দ্বিতীয় স্ত্রী বাদী হয়ে অজ্ঞাত চারজনকে আসামি করে সিরাজদিখান থানায় মামলা করেন।

শাহজাহান বাচ্চু বিশাকা প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী ও মুন্সিগঞ্জ জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]