চিংড়ি চাষে সাতক্ষীরা দেশের প্রথম

সাতক্ষীরা: সাতক্ষীরায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ ২০১৮ উপলক্ষে ‘স্বয়ংসম্পূর্ণ মাছে দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার এ উপলক্ষে সাতক্ষীরা জেলা মৎস্য অফিসের উদ্যোগে শহরের শহীদ আব্দুর রাজ্জাক পার্ক থেকে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে সদর উপজেলা পরিষদে গিয়ে শেষ হয়। পরে সদর উপজেলা মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় জেলা মৎস্য অফিসার মো. শহীদুল ইসলাম সরদারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইফতেখার হোসেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, বাংলাদেশের মধ্যে সাতক্ষীরা জেলা মৎস্য উৎপাদনে শীর্ষে অবস্থান করছে। বর্তমানে যত্রতত্র অপরিকল্পিতভাবে মৎস্য চাষ করা হচ্ছে। এতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে। সকলের স্বার্থে পরিকল্পিতভাবে মৎস্য চাষ করতে হবে। জাতীয় অর্থনৈতিক উন্নয়ন, পুষ্টির চাহিদা পূরণ, বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন ও দারিদ্র্য বিমোচনে সাতক্ষীরা জেলার গুরুত্ব অনেক বেশি।

এ জেলায় বার্ষিক মৎস্য উৎপাদন হয় ১ লক্ষ ৩১ হাজার ৫১৬ মেট্রিক টন। জনগণের চাহিদা মিটিয়ে প্রায় ৮৯ হাজার ২২৩ মেট্রিক টন মাছ ও চিংড়ি বিদেশে রপ্তানি এবং অন্যান্য জেলায় সরবরাহ করা হয়। বর্তমানে মৎস্য উৎপাদনে বাংলাদেশের অবস্থান ৪র্থ। চিংড়ি চাষে সাতক্ষীরা দেশে প্রথম স্থানে থাকলেও তা এখন নানাভাবে হুমকির মুখে পড়ছে। এক্ষেত্রে চিংড়ি পোনার ভাইরাস রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে।

তিনি আরও বলেন, এ জেলায় ৩ হাজার ৯০ মেট্রিক টন কাঁকড়া উৎপাদন হয়। বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে কাঁকড়া গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। বাণিজ্যিকভাবে কাঁকড়া চাষের ক্ষেত্রে বন বিভাগের যে নীতিমালা রয়েছে, ১০০ গ্রামের নিচে কোনো কাঁকড়া ধরা যাবে না- তা সংশোধন করতে হবে। না হলে বৈদেশিকভাবে কাঁকড়া রপ্তানিও হুমকির মুখে পড়বে। কারণ বিদেশে সাধারণত চাহিদা ৬০ গ্রামের কাঁকড়ার। মৎস্য উৎপাদনে এ জেলার সম্ভাবনা অনেক বেশি। এটি আমাদের ধরে রাখতে হবে।

সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক শাহ্ আবদুল সাদী, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আসাদুজ্জামান বাবু, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার তহমিনা খাতুন, সহকারি পুলিশ সুপার (তালা সার্কেল) মো. অপু সরোয়ার ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কোহিনুর ইসলাম।

আলোচনায় অংশ নেন- জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা সমরেশ চন্দ্র দাস, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা (সদর) মো. রাশেদুল হক, সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মো. লুৎফর রহমান, বড় বাজার মৎস্য ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আ.স.ম আব্দুর রবসহ আরো অনেকে।

পরে পৌর দীঘিতে মৎস্য পোনা অবমুক্ত করেন অতিথিবৃন্দ।

news portal website developers eCommerce Website Design