আপাতত গুপ্তধন খোঁজা বন্ধ করলেন ম্যাজিস্ট্রেট

মিরপুর : গুপ্তধন আছে এমন গুঞ্জনে রাজধানীর মিরপুরের একটি বাড়িতে যে খননকাজ চলছিল তা আপাতত স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। শনিবার বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনোয়ার উজ জামান খননকাজ স্থগিতের ঘোষণা দেন।

তিনি বলেন, আমরা সকাল থেকে বাড়িটির প্রায় সাড়ে ৪ ফুট পর্যন্ত খনন করেছি। এখন পর্যন্ত কিছুই পাওয়া যায়নি।

আনোয়ার উজ জামান বলেন, বাড়িটি অনেক পুরোনো। এর ভিত্তিপ্রস্তর দুর্বল হওয়ায় আরো খনন করলে বাড়িটি দেবে যেতে পারে। এমন আশঙ্কায় আপাতত খনন কাজ স্থগিত করা হয়েছে।

ম্যাজিস্ট্রেট আনোয়ার বলেন, আমরা সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের সাথে পরামর্শ করে তারপর আবার কার্যক্রম শুরু করতে চাই। যদি কালকের মধ্যে বিশেষজ্ঞ পাওয়া যায়, তাহলে পরামর্শ করে কালই আবার খনন কাজ শুরু করবো।

কাজ শুরু না হওয়া পর্যন্ত বাড়িটি পুলিশের হেফাজতে থাকবে বলেও জানান এই ম্যাজিস্ট্রেট।
মিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দাদন ফকির বলেন, বাড়িটিতে গুপ্তধন রয়েছে বলে আবু তৈয়ব নামে একজন গত ১০ জুলাই থানায় জিডি করেন। এ ছাড়াও ওই বাড়ির বর্তমান মালিক মনিরুল আলমও গুপ্তধনের বিষয়টি উল্লেখ করে ১৪ জুলাই থানায় একটি জিডি করেন।

তিনি বলেন, দুই পক্ষই বাড়িতে গুপ্তধন থাকার কথা জানিয়ে জিডি করায় পুলিশ আদালত ও প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরকে বিষয়টি জানায়। এরপর আদালতের নির্দেশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতিতে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে আজ বাড়িটির খনন শুরু করা হয়।

এর আগে গত কয়েকদিন ধরেই মিরপুর-১০ নম্বর সেকশনের সি ব্লকের ১৬ নম্বর সড়কের ১৬ নম্বরের এই বাড়িটিতে কোটি টাকা মূল্যের গুপ্তধন রয়েছে বলে গুঞ্জন চলছিল।

জানা গেছে, বাড়িটির আগের মালিক ছিলেন একজন পাকিস্তানি। তার দেয়া তথ্যমতে সেখানে গুপ্তধন আছে বলে জানতে পারেন বাড়ির বর্তমান মালিক দাবিদার মনিরুল আলম।

news portal website developers LY1Y2K eCommerce Website Design
Close ads[X]