পুরোনো টুথব্রাশের নানারকম ব্যবহার

 লাইফস্টাইল ডেস্ক : টুথব্রাশ তো সবাই-ই ব্যবহার করেন। অন্তত তিন মাস পর পর টুথব্রাশ পরিবর্তন করা উচিত। তাহলে সেই পুরোনো ব্রাশটা কি ফেলে দেন? শুধু দাঁত ব্রাশই নয়, এটা ছাড়াও টুথব্রাশের রয়েছে নানারকম ব্যবহার। আজ সেগুলো জেনে নিন-

১. ঘনঘন নেলপলিশ লাগালে আপনার নখ হলুদ হয়ে যায়। নখের হলুদ ভাব কমানোর জন্য লেবুর রস এবং বেকিং সোডার একটি মিশ্রণ তৈরি করে ব্রাশ দিয়ে নিজের নখে লাগিয়ে নেবেন। ১৫ মিনিট পর ঠাণ্ডা জল দিয়ে ধুয়ে নেবেন। নখের সতেজ ও পরিষ্কার ভাবটি ফিরে আসবে।

২. অনেক সময় রান্নাঘরের ভেতরের কিছু কোনা থাকে যেখানে আপনার হাত পৌছায় না। এই ক্ষেত্রে টুথব্রাশ অনেক কার্যকর। হালকা সাবান লাগিয়ে ব্রাশ দিয়ে সেইসব জায়গা পরিষ্কার করতে পারেন।

আরো পড়ুন:- দুই সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩৬০
৩. নিজের উড়ে যাওয়া চুলকে সামলাতে অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছেন? তাহলে টুথব্রাশের উপর হেয়ার স্প্রে লাগিয়ে নিজের চুলের সমস্যা আক্রান্ত জায়গায় ব্রাশ করুন।

৪. চুল উঠে যাচ্ছে? টেনশন না করে টুথব্রাশে টি ট্রি অয়েল লাগিয়ে যে জায়গার চুল যায় সে জায়গায় ঘষুন। চুল গজাতে সহায়তা করবে।

৫. নেইল আর্ট করার জন্য আপনি টুথব্রাশ ব্যবহার করতে পারেন। তবে নেইল আর্ট করার আগে নিজের আঙুলগুলো ঢেকে নিবেন।

৬. ঠোঁট ফেটে গেলে বাচ্চাদের একটি টুথব্রাশে পেট্রোলিয়াম জেলি লাগিয়ে আলতো করে নিজের ঠোঁটে বুলিয়ে দিন। ঠোঁট নরম লাগবে।

৭. জুতার নিচের রাবারের অংশটি নোংরা হয়ে গেলে সাদা টুথপেস্ট নিয়ে টুথব্রাশে লাগিয়ে দাঁত মাজার মতো করে মেজে নিন। জুতা হয়ে যাবে ফকফকা সাদা।

news portal website developers eCommerce Website Design