চীনে খোঁজ মিলেছে ২৭৭ বছরের ঐতিহাসিক ঘণ্টার

উত্তর চীনের ঐতিহাসিক রাজ্য হেবেই। বৌদ্ধ ধর্মের হরেক নিদর্শন ছড়িয়ে রয়েছে এই রাজ্যের আনাচেকানাচে। অষ্টাদশ শতাব্দীর রাজপ্রাসাদ, বাগান, প্যাগোডা…এখনও রয়েছে সবই। বহু মানুষ প্রতি বছর সারা বিশ্ব থেকেই আসেন এই রাজ্যের এই নিদর্শনগুলোর আকর্ষণে।

এখানকারই একটি গ্রাম থেকে পাওয়া গেল ২৭৭ বছর আগে তৈরি হওয়া একটি ঘণ্টা। ঘণ্টাটির ওজন ২০০ কেজি। উচ্চতা এক মিটার। ব্যাস ৮০ সেন্টিমিটার।

সংবাদ সংস্থা জিনহুয়া জানিয়েছে, ঘণ্টাটির ঐতিহাসিক মূল্যই শুধু নয়, শিল্পের দিক দিয়েও এর গুরুত্ব অপরিসীম। প্রায় তিনশো বছর আগে তৈরি ঘণ্টাটির গায়ে খোদাই করা রয়েছে দুটো ভাগ। উপরের ভাগে রয়েছে আটটি বাস্তব চরিত্র, যারা ওই সময়ে ক্ষমতায় থাকা রাজা ও যুবরাজের প্রশ্বস্তি করে ও তাদের দীর্ঘ জীবনের জন্য শুভকামনা জানিয়ে কিছু কথা লিখেছেন।

ঘণ্টার নিচের ভাগটিতে তিনশোরও বেশি চরিত্র খোদাই করে রাখা রয়েছে। চীনের সাংস্কৃতিক ও ঐতিহাসিক সামগ্রী বিশেষজ্ঞ বলছিলেন, চীনের ইতিহাসের সঙ্গে এই ঘণ্টাটি জড়িয়ে আছে ওতপ্রোতভাবে দীর্ঘ কয়েক শতাব্দী ধরেই। প্রথমে এই ঘণ্টাটি ব্যবহার করা হত বার্তা দেওয়ার জন্য। পরে এটিকে একটি বাদ্যযন্ত্র হিসেবেও ব্যবহার করা হয়।

এই ঘণ্টা তৈরির পর পেরিয়ে গেছে প্রায় তিনশো বছর সময়। হোয়াংহো দিয়ে বয়ে গেছে অনেক পানি। গোটা পৃথিবীই তার নিজের তালেই বদলে গেছে অনেকটা। এর মধ্যেই এখনও রয়ে গেছে অতিবৃদ্ধ ও ভারি ঘন্টাটি। চীনের বাতাসে ইতিহাস ও ঐতিহ্যের ধ্বনি মিশিয়ে চলে সে।

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]