শরীয়তপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১১ মামলার আসামি নিহত

cross fire

শরীয়তপুর সদর উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে সুমন পাহাড় (২৭) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সুমন পাহাড় শরীয়তপুর পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের উত্তর বালুচড়া গ্রামের মৃত মো. এসকেন পাহাড়ের ছেলে। তারা বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও মাদকসহ ১১টি মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

শরীয়তপুরের পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন জানান, মাদক ব্যবসায়ীরা নিজেদের মধ্যে মাদক ভাগ-বাটোয়ারা করছে- এমন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে সদর উপজেলার পালং ইউনিয়নের আটং-ছয়গাঁও সড়কের পাশে জনৈক শুকুর তালুকদারের মেহগনি বাগানে পুলিশের একটি দল অভিযান চালায়। এ সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে তারা ককটেল ও গুলি ছুড়লে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে গোলাগুলি থেমে গেলে পুলিশ মাদক ব্যবসায়ী সুমন পাহাড়ের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে। পরে ঘটনাস্থল থেকে সুমন পাহাড়ের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তর জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। গোলাগুলিতে জেলা গোয়েন্দা শাখার এএসআই (নিঃ) সামছুজ্জামান, পালং মডেল থানার কনস্টেবল-২২৭ শামিম হোসেন ও কনস্টেবল-৩৯২ জিয়াউর রহমান আহত হন।

তিনি আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে ছয়টি ককটেল, একটি মোটরসাইকেল, এক কেজি গাঁজা ও ৫১ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। নিহত সুমন পাহাড়ের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও মাদকসহ ১১টি মামলা রয়েছে।

শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আকরাম এলাহী বলেন, সোমবার দিবাগত রাতে সুমন পাহাড় নামে এক লোককে হাসপাতালে নিয়ে আসে পুলিশ। তবে সুমন হাসপাতালে আনার আগেই মারা যায়।

news portal website developers eCommerce Website Design