মিস ইংল্যান্ড প্রতিযোগিতায় প্রথম হিজাবধারী নারী

সারা ইফতেখার। বয়স মাত্র ২০। যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অব হাডার্সফিল্ডের আইন বিভাগের শিক্ষার্থী। হিজাব পরিহিত মুসলিম নারী হিসেবে প্রথমবারের মতো যুক্তরাজ্যের সৌন্দর্য প্রতিযোগিতা ‘মিস ইংল্যান্ড ২০১৮’ এর চূড়ান্ত পর্বে জায়গা করে নিয়েছেন সারা।

আজ মঙ্গলবার মিস ইংল্যান্ডের ফাইনালে নটিংহ্যামশায়ারের কেলহ্যাম হলে হিজাব পরে প্রতিযোগিতায় অংশ নেবেন সারা। মঙ্গলবারের এই প্রতিযোগিতায় জিততে আরও ৪৯ জন প্রতিযোগীর সঙ্গে ব্যাপক লড়াই করতে হবে সারাকে। তবে এই প্রতিযোগিতায় জয়ী হলে চীনে মিস ওয়ার্ল্ডে ইংল্যান্ডের প্রতিনিধিত্ব করবেন এই মুসলিম নারী।

নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে প্রায়ই পাকিস্তানি পোশাক পরে ছবি দেয়া সারা বলেন, প্রতিযোগিতার ফাইনালে পৌঁছানো ‘কতটা দারুণ’ তা আমি বোঝাতে পারবো না।

গেল জুলাইয়ে একটি ট্রফি হাতে নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে সেলফি দিয়ে সারা লিখেন- ‘ওয়াও!!! ২০১৮ সালের মিস ইংল্যান্ডে ফাইনালে পৌঁছানো অনুভূতি বোঝাতে পারবো না। আলহামদুলিল্লাহ’।

মিস হাডার্সফিল্ড ২০১৮ সারা বলেন, এটা একটা অবিশ্বাস্য অনুভূতি এবং আমি কখনও ভুলবো না। মিস ইংল্যান্ডের ফাইনালিস্ট হওয়ার পর যে সুবিধাগুলো আমি পেয়েছি, তা কখনও পাওয়ার আশা করিনি এবং আমি এর জন্য সারাজীবন কৃতজ্ঞ থাকবো।

১৬ বছর বয়সেই নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান চালু করা সারা তার জনপ্রিয়তাকে ব্যবহার করে যে অর্থ পেয়েছেন, তা দিয়ে একটি দাতব্য সংস্থা খুলেছেন। সারা গোফান্ডমি দাতব্য সংস্থাটি দক্ষিণ আমেরিকা, শ্রীলঙ্কা, রাশিয়া, ভিয়েতনামের বাস্তুচ্যুত শিশু এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্য করে থাকে।

নিজের গোফান্ডমি পেজে তিনি লিখেন, সৌন্দর্যের কোনও সংজ্ঞা হয় না। এটা দেখাতেই আমি মিস ইংল্যান্ড ২০১৮ প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছি। ওজন, জাতি, বর্ণ বা আকৃতি যাই হোক না কেন, সবাই তাদের নিজের মতো সুন্দর।

news portal website developers eCommerce Website Design
Close ads[X]