ফখরুলদের অনুরোধের জবাবে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

Asadujjaman khan kamal

বিএনপির কারাবন্দি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়ে মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

রোববার সচিবালয়ে বিএনপি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের একথা জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিএনপি মহাসচিবের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল আমাদের কাছে এসেছিলেন। তারা তাদের দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য বিষয়ে একটি লিখিত বক্তব্য আমাকে দিয়েছেন।

‘তার (খালেদা জিয়া) স্বাস্থ্যের বিষয়ে বেশকিছু অনুরোধ করেছেন। তারা বলেছেন, তিনি এখন বেশ অসুস্থ এবং এর মাত্রা দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে। তার চিকিৎসার জন্য এর আগে আবেদন করা ইউনাইটেড হাসাপাতালের পাশাপাশি নতুন করে আজ ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তির আবেদন করেছেন’ যোগ করেন তিনি।

আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ‘আমরা ইতোমধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা ও সেবা বিভাগের সচিব এবং আইজি প্রিজন্সকে নির্দেশ দিয়েছি। তারা খালেদা জিয়ার আগে থেকেই চিকিৎসা করা ডাক্তার ও সরকারি ডাক্তারদের সমন্বয়ে একটি মেডিকেল টিম গঠন করবেন। বিগত সময়ের মতো এবারো তাকে উন্নত চিকিৎসা করাবেন।’

তিনি বলেন, ‘গঠিত মেডিকেল টিমের ডাক্তাররা যে পরামর্শ দেবেন আমরা সেই অনুসারে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। তারা যদি বলে সরকারি হাসপাতালে তার প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যবস্থা নেই তাহলে আমরা পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আদালতের নির্দেশে এর আগে খালেদা জিয়ার সেবার জন্য একজন মহিলাকে সেখানে থাকার অনুমতি দিয়েছি। বর্তমানে খালেদার জিয়ার জন্য ফিজিও থেরাপিস্ট কারাগারে এক দিন পরপর থেরাপি দিচ্ছেন। এর সাথে একজন সার্বক্ষণিক ডাক্তার ও ফার্মাসিস্ট নিয়োগ দেয়া আছে। তারা সার্বক্ষণিক তার চিকিৎসা করছেন। আমরা একজন বন্দীর জেলকোড অনুসারে সর্বোচ্চ চিকিৎসা দিচ্ছি।

তিনি বলেন, তারপরও আজ বিএনপি নেতৃবৃন্দ ইউনাইটেড ও ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তির যে আবেদন করেছন সেটা যদি গঠিত মেডিকেল টিম মনে করেন, তাহলে সে অনুসারে আমরা ব্যবস্থা নেব। তবে কারাগারের চিকিৎসা সংক্রান্ত যে নীতিমালা রয়েছে সে অনুযায়ী সর্বোচ্চ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বেসরকারি হাসপাতালে খালেদা জিয়াকে চিকিৎসা করালে নীতিমালার ব্যত্যয় ঘটবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ডাক্তাররা যদি বলেন সরকারি হাসপাতালে তার চিকিৎসা সংশ্লিষ্ট ব্যবস্থা নেই, তাহলে সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এরআগে বিকাল ৩টার দি‌কে সচিবালয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন। এতে অংশ নেন স্থায়ী ক‌মি‌টির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান ও ড. আবদুল মঈন খান।

উল্লেখ্য, গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দেন বিচারিক আদালত। এরপর থেকে তাকে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হয়েছে।

গত বুধবার এই কারাগারেই আদালত বসিয়ে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার বিচারকাজ শুরু হয়ছে।

news portal website developers eCommerce Website Design