একুশের অসমাপ্ত কবিতা -শাহনাজ পারভীন

ইয়ারলি রিভিউ শেষে পৃথিবীকে যখন পূর্ণতা দিতে এসেছিলে মৃত্তিকার মত
সহিষ্ণু হয়ে এসেছিলে সত্যের মত নির্ভীক হয়ে এসেছিলে পৃথিবীর মত বিপুল হয়ে
এসেছিলে আকাশের মত বিশাল হয়ে এসেছিলে এবং সমুদ্রের মত গর্জন হয়ে এসেছিলে
তাই সব জল আর কাদা হয়ে মিশে আছো এ মাটির সাথে একাকার দীর্ঘ পাঠের পর যেইভাবে স্বস্তিতে শান্তিতে বিশ্রামে যায় দীর্ঘ শ্রমের পর শ্রমিক মুজুরী পেয়ে আয়েশে হারায় সেইভাবে তোমরাও গভীর পাঠক হলে- কঠিন শ্রমিক হলে পৃথিবীকে দিয়ে গেলে দুইহাতে মুঠি মুঠি ফুল মান্থলি রিভিউ শেষে তোমরা যখন এলে প্রজাপতির সৌহার্দ্য ছড়ালো আবার… মৃত্তিকার ঔরস থেকে যেভাবে শস্যকে ছিনিয়ে আনে সমুদ্রের বক্ষ থেকে
যেইভাবে কল্লোলকে ছিনিয়ে আনে পাখির পালক থেকে যেইভাবে শুভ্রতাকে ছিনিয়ে আনে বৃষ্টির কলতান থেকে যেইভাবে সঙ্গীতকে ছিনিয়ে আনে এবং মেঘের ডমরু থেকে ছিনিয়ে আনা গর্জনের মত পৃথিবীময় রেখে গেলে ঐ তপ্তশ্বাস আহা রফিক! আহা শফিক! আহা জব্বার! তোমাদের ছিনিয়ে আনা চিরচেনা এইসব প্রাণময় কাক্সিক্ষত কথা-
হতাশার হাহাকার সরিয়ে দেখ, আজ ইতিহাস!