বর্তমান কবি-শেখ শাদাব সাদিক

কবি ভুলেছেন ছবি আঁকা।

 

কবির নাকে আর,

আসেনা টিয়া মুকুলের বাসন্তি ঘ্রাণ।

স্বার্থপর, অনুভুতিহিন, হিংস্র আজ –

কবিপ্রাণ।

 

এখন কবিতার জন্য কবিতা,

ভালোবাসার কবিতা,দারিদ্রের চুয়ে পড়া-

ঘর্মের তরে কেউ,লেখেনা কবিতা,

কলম ধরেনা;কারণ-

বর্তমান কবি পুরানো ধাঁচের,

কাঠের ঘুন লাগা কবি নয়।

এরা মহান-উজ্জ্বল,বুদ্ধির শিখা,

হাহাকার দিয়ে জেগে ওঠা!

 

কবি এখন বর্তমানে,

আরও জ্ঞানী,আরও স্মার্ট।

তাদের ছবি তুলবে,ফ্লাসের আলোতে অন্ধ রাত হবে-

জ্বলন্ত প্রভা……

কবি তো চান এটাই।

 

কবি এদিনে আশা করেন অন্য কবির জান;

ধ্বংস করে,মৃত কবির লাশের –

বুকের ধংসস্তুপে,ধূলিভরা হৃদে;

পুঁতে দেবেন নিজ নিশান!

 

আজ কবির বিরুদ্ধে কবি

 

কবিতা মন থেকে আর আসেনা,

তবু বিখ্যাত হবেনই,তাই অতি কষ্টে ধরেন-

ভারী কলমটি।

 

আত্মস্বীকৃতির জন্য সারা দিবারাত্রি,

চোখ হায়েনার মতো হাঁকতে থাকে।

অন্যের কবিতা ছাপা হওয়া পেপার হয়

পরমাণুর ন্যায় ক্ষুদ্র ও সূক্ষ্মভাবে কুচিকুচি,

লোহিত করুণ চিকার প্রতিধ্বনি হয়ে কাঁদতে চায়।

 

যারা বলে আরেকটু ভালো করা,

যেতনা কি?

কবি ধীরগতিতে রক্তাক্ষী নিয়ে

তাকান,

তার চোখ থেকে টিপটিপ করে,

রক্ত পড়ে।যেখানে পড়ে,

পুড়ে ঝলসে চিার করে ওঠে সর্বত্র!

 

বর্তমান কবিরা স্বয়ংসম্পূর্ণ রাজা,

মান্ধাতার প্রজা নয়।

নিজেদের ভাবে ক্ষমতাশালী রাজা;

ভুল নেই,রাজা এমনই হয়।