বৃষ্টির স্পর্ধা – ড. শাহনাজ পারভীন

বৃষ্টির স্পর্ধা দেখে আমি হতভম্ব
খেয়াল স্বভাবের কারণে মৈথালী সূরে
সে যখন তখন ঝপাৎ নেমে পড়ে
পাহাড়ের ঢাল বেয়ে কখনও বা হাসি কখনও বা কান্না ফোটে
খেটে খাওয়া মানুষের সারা বছরের আহার
বৈশাখী ধানের গন্ধ, মা মাছেদের হুলস্থুল বাচ্চাসহ বেষ্টনী,
সব ভেদ করে চপলা কিশোরীর চঞ্চল পায়ে বাজনা বাজায় নূপুরের নিক্কন
আর আমরা জন্মান্ধ !
অহেতুক ম্যালথাসের অর্থনৈতিক সূত্রে
নিজেরা আবদ্ধ থাকি দিন রাত।
খবরের কাগজের পাতায় চোখ রেখে
তের কেজি ওজনের নিস্তেজ আড় মাছের ছবি দেখি…
হাসিহীন কৃষকের মুখ।
পোয়াতি ধান গাছের লাশ পচে যাচ্ছে
পচে যাচ্ছে হাওড়ের মাছ
আমরা সে দুর্গন্ধ ঠেকাতে ডেকে আনি
অসম্ভব অনৈতিক বৃষ্টি দুপুর ।
আলোহীন অন্ধকারে খাতা খোলা ছাত্রগুলো এক্সামে অধীর তখন ।
আহা বৃষ্টি ! প্রেমিক মনন তোমার
ভুলে যাও বড় অসময়!